দেখে নিন আপানি কিভাবে উপকৃত হবেন, জিও ও ফেসবুক এর কাছ থেকে

181
দেখে নিন আপানি কিভাবে উপকৃত হবেন, জিও ও ফেসবুক এর কাছ থেকে

রিলায়েন্স জিওর ৯.৯৯ শতাংশ মালিক কিনল মার্ক জুকারবার্গ। ৪৩,৭৫৪ কোটি টাকা দিয়ে রিলায়েন্স জিও-র ৯.৯৯ শতাংশ মালিকানা কিনলেন মার্ক জুকারবার্গ। কী ভাবে এতে উপকৃত হবেন ভারতের সাধারণ মানুষ, এ বিষয়ে জানালেন মার্ক জুকারবার্গ। ফেসবুকে পোস্ট করে মার্ক জুকারবার্গ বলেন, রিলায়েন্স জিও এবং তাঁর সংস্থা মিলে ভারতের ৬ কোটি ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীর কাছে প্রযুক্তিগত সাহায্য পৌঁছে দিতে পারবেন। তাঁরা এই সমস্ত সংস্থাগুলির নিজেদের ব্যবসা বাড়ানোতে সাহায্য করবেন। সংখ্যালঘু অংশীদারিত্বের জন্য এর আগে কোনও তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা এত টাকা ঢালেনি।

চুক্তি অনুযায়ী স্থানীয় দোকান, মুদির দোকান এবং অন্যান্যরাও জিওমার্টে তাদের নাম নথিভুক্ত করতে পারবে। এই অ্যাপে রেজিস্টার হয়ে গেলে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে তারা অর্ডার পাবেন এবং জিওমার্টের মাধ্যমে তা পৌঁছে যাবে গ্রাহকদের বাড়ি বাড়ি। এর ফলে ছোট ছোট স্থানীয় ব্যবসায়ীরা তাদের ব্যবসার পরিধি আরও বাড়াতে পারবেন এবং বেশি লাভের মুখ দেখতে পারবেন তারা। এর দোকানদাররা ফলে নিজেদের পাড়া ছাড়াও বাইরের বহু গ্রাহক নিজেদের আয়ত্তে আনতে পারবেন। চুক্তির পর রিলায়েন্স জিওর কর্ণধার মুকেশ আম্বানি জানান, জিওমার্ট এবং হোয়াটসঅ্যাপের এই যুগলবন্দী আগামী দিনে দেশে বিপ্লব আনবে।

দুই সংস্থারোই দাবি, এর মাধ্যমে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা লাভবান হবেন। ভারতে যে ৬ কোটি ছোটো ব্যবসায়ী আছে তাঁদের এই সংস্থা টার্গেট করছে। অসংগঠিত ক্ষেত্রে যে কৃষক এবং শ্রমিকরা কাজ করেন তারা যাতে নিকটবর্তী মুদির দোকানে মাল পৌঁছাতে পারেন, সেটি নিশ্চিত করতে চায় জিও এবং ফেসবুক। হোয়াটসঅ্যাপ পে-এর মাধ্যমে টাকা লেনদেন হবে। তার মানে হল, রিলায়েন্স সাপ্লাই চেইন গড়ে দেবে এবং টেলিকম সাপোর্টও দেবে তারা। অন্যদিকে হোয়াটসঅ্যাপ পে-র মাধ্যমে সহজেই টাকা আদানপ্রদানের কাজ হবে।