হার্টঅ্যাটাকের পূর্বে যে লক্ষণ গুলি ধরা দেয় শরীরে! জেনে নিন

14
হার্টঅ্যাটাকের পূর্বে যে লক্ষণ গুলি ধরা দেয় শরীরে! জেনে নিন

মানসিক চাপ, সঙ্গে শরীরের উচ্চ রক্তচাপ, উচ্চ কোলেস্টেরল, জেনেটিক রোগ, বয়স জনিত রোগ এবং তার সঙ্গে অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাপন যন্ত্র বিকল হয়ে যাওয়ার জন্য অন্যতম কারণ। তবে সঠিক সময়ে যদি সতর্ক হওয়া যায় তাহলে কিন্তু হার্ট অ্যাটাকের বিপদ থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে। জানেন কি হার্টঅ্যাটাকের পূর্বাভাস দেয় আপনার শরীর নিজেই?

ফরসিথ ইনস্টিটিউট এবং হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা সম্প্রতি হার্ট অ্যাটাকের সঙ্গে মাড়ির প্রদাহ এবং ধরনের প্রদাহ সম্পর্কিত শক্তিশালী সংযোগ খুঁজে পেয়েছেন। তাদের দাবি, যে সকল ব্যক্তিরা পিরিওডোনটাইটিসে আক্রান্ত তাদের হৃদরোগজনিত রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেশি থাকে। যারা মাড়ির প্রদাহ কিংবা ধমনীর প্রদাহ সংক্রান্ত সমস্যায় ভুগছেন তাদের হার্ট অ্যাটাক, স্ট্রোক এবং অন্যান্য হৃদরোগ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

304 জন ভলেন্টিয়ারের ধমনী এবং মাড়ির টোমোগ্রাফি স্ক্যান করে সম্প্রতি এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। এদের মধ্যে 13 জনের হৃদরোগের ঝুঁকি বেশি ছিল বলে জানা যায়। গবেষকেরা গবেষণা করে দেখেছেন যে পিরিওডেন্টাল ইনফ্লামেশন কার্যত হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়। কাজেই যদি কারোর মাড়ি ফুলে যায়, তাহলে তাদের সতর্ক হওয়ার নির্দেশ দিচ্ছেন চিকিৎসকেরা।

যদি ওই ব্যক্তির হৃদরোগের ঝুঁকি থাকে তাহলে তাদের পিরিওডন্টাল রোগকে উপেক্ষা করা উচিত নয় বলেই সতর্ক করেছেন গবেষকেরা। এক্ষেত্রে মারি পরীক্ষা করার পর ডেন্টিস্ট সম্ভাব্য বিপদ সম্পর্কে আগাম সতর্ক করে দিতে পারেন। তাই মাড়ির সমস্যা অবহেলা করবেন না।