তিনদিনের উত্তরবঙ্গ সফরে এলেন রাজ্যের পরিবহন মন্ত্রী স্নেহাশিস চক্রবর্তী

6
তিনদিনের উত্তরবঙ্গ সফরে এলেন রাজ্যের পরিবহন মন্ত্রী স্নেহাশিস চক্রবর্তী

সোমবার তিনদিনের উত্তরবঙ্গ সফরে এলেন রাজ্যের পরিবহন মন্ত্রী স্নেহাশিস চক্রবর্তী। এদিন দুপুরে কলকাতা থেকে বাগডোগরা বিমানবন্দরে নামেন তিনি। এরপর বাগডোগরা বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন যে দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ নিগমের আন্ডারে চুক্তিভিত্তিক কন্ডেকটার আছে তারা আন্দোলন করছে বেশ কয়েকদিন ধরেই। এরা মূলত কয়েকবছর আগে এজেন্সির মাধ্যমে চুক্তি ভিত্তিক লেবার হিসিবে যোগদান করেছে এবং নো ওয়ার্ক নো পে এই সিস্টেমের মধ্যে যোগদান করেছে।

প্রথম থেকেই আমি আলোচনার দরজা খোলা রেখেছিলাম। যে আসুন বসে কি আপনাদের সমস্যা আছে যতটা আপনাদের চুক্তির মধ্যে আছে মনে করেন পাচ্ছেন না আমি অবশ্যই সেইগুলো নিয়ে কথা বলবো। আমি আলোচনা জন্য দরজা খুলে রেখে ছিলাম তার পরেও বেশ কয়েকদিন ধরেই বিভিন্ন ডিপোতে অবরোধ করে রেখেছে এইটা অনুচিত হচ্ছে। দেখুন একজন পরিবহন কর্মী হিসেবে পরিবহণ ব্যবস্থাকে বিপর্যত করে রাখা তার দায়িত্বের মধ্যে পরে না। পরিবহন সচলতা রাখা একটা পরিবহণ কর্মীর দায়িত্বশীল কাজ। আমি বলেছিলাম পূজোর মরশুমে এইভাবে বাধা দিবেন না আলোচনায় আসুন আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান হতে পারে। আমার বক্তব্য হচ্ছে তাদের পরিবারের প্রতি সংবেদনশীলতা আছে। আমি তাই এই পুজোর মরশুমে অনুরোধ করছি অবরোধ তুলে নিন এবং আপনারা কাজে যোগদিন।

আপনারা ২৬ দিন যাতে কাজ পান দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার সঙ্গে কথা বলেছি আমরা সুনিশ্চিত করবো যাতে আপনারা পরিবার নিয়ে সুস্থ ভাবে থাকতে পারেন। এবং তাদের আরও দাবি রয়েছে সেই সময় নিয়ে বসবো। এর পাশাপাশি তিনি বলেন যদি তারা আন্দোলন প্রত্যাহার না করে তাহলে আমাদের অন্য রকম ভাবতে হবে। কারণ সাধারণ মানুষকে অবরোধ করে পুজোর সময় যারা অবরোধ করতে তারা ঠিক করছে না।

আর আমি আজকেই দেখবো এইটা তুলে নিতে হবে না হলে আমি টার্মিনেট করে দিতে পারি এজেন্সিকে,এগ্রিমেন্ট ভঙ্গ করতে পারি,শোকজ করতে পারি। মানুষের যেখানে অসুবিধা হচ্ছে আমি তো তাহলে বেশিদিন অপেক্ষা করতে পারিনা। আমার তাদের প্রতি বিশ্বাস আছে ভরসা আছে চটপট যত জায়গায় অবরোধ আছে তারা তুলে নিবে। এরপর সড়ক পথ দিয়ে সোজা চলে যান দার্জিলিং এর উদ্দেশ্যে।