পুজো কমিটি গুলোর উদ্দেশ্যে এক বিশেষ ঘোষণা করলেন রাজ্যের শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়

44
পুজো কমিটি গুলোর উদ্দেশ্যে এক বিশেষ ঘোষণা করলেন রাজ্যের শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়

গতবছর করোনা পর্বে জাঁকজমক করে দূর্গা পূজার আয়োজন করা সম্ভব হয়নি। নতুবা প্রতি বছর কোটি কোটি টাকা খরচ করে পূজার আয়োজন করে থাকে ক্লাব কর্তৃপক্ষ। তবে করোনার জন্য সেবারে অবশ্য দুর্গাপূজা কমিটিগুলির ছোট করে অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এবারও যদি তেমন ভাবেই ছোট করে দুর্গা পুজোর আয়োজন করা যায় এবং দূর্গাপূজার জন্য যে অর্থ খরচ হয় তা বাঁচানো যায়, তাহলে ভালোভাবে বলেই মনে করেন রাজ্যের শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

আসন্ন দুর্গাপূজা নিয়ে বাঙালির আগ্রহ কিছু কম নয়। তবে দুর্গাপূজায় যে অর্থ খরচ করা হবে তার অর্ধেক যদি করোনা মোকাবিলায় ব্যবহার করা হয়, তাহলে ভালো হবে বলে মনে করেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী। গতবছর করোনার জন্য পুজোর আয়োজনে কাটছাঁট করা হয়েছিল। বেশ কিছু জায়গায় মণ্ডপে দর্শকের প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। গত বছরের তুলনায় এই দফায় অবশ্য পরিস্থিতি অনেকটাই স্বাভাবিক ভাবে করোনা এখনো পুরোপুরি নির্মূল হয়নি। ভ্যাক্সিনেশন পর্ব চলছে।

দূর্গাপূজার উৎসব শুরু হতে আর মাত্র কয়েক দিনের অপেক্ষা। তার উপর আবার করোনার তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়তে চলেছে দেশে। পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে মঙ্গলবার পুজো কমিটি গুলোর উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন রাজ্যের শিল্পমন্ত্রী। এদিন তিনি পুজো কমিটি গুলির কাছে দূর্গা পূজার জন্য বরাদ্দ বাজেটে কিছু কাটছাঁট করার আবেদন রেখেছেন। বাজেট অর্ধেক করে বরং গরিব-দুঃখীদের সেই টাকা দিয়ে সাহায্য করার বার্তা দিয়েছেন তিনি।

সঞ্চিত অর্থ উঠিয়ে গরিব-দুঃখীদের টিকাকরণের ব্যবস্থা করতে অথবা তাদের জন্য চিকিৎসার ব্যবস্থা করার পরামর্শ দিয়েছেন রাজ্যের শিল্পমন্ত্রী। তিনি আরো জানিয়েছেন তার এলাকায় নাকতলা উদয়ন সংঘেও ছোট করেই জাঁকজমকহীন ভাবে দেবী দুর্গার আরাধনা করা হবে।