প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে ফের জল্পনা! বিজ্ঞপ্তিকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ এক টেট উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থী

10
প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে ফের জল্পনা! বিজ্ঞপ্তিকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ এক টেট উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থী

রাজ্যে শিক্ষক পদে নিয়োগ ঘীরে বিতর্কের অবসান যেন কিছুতেই সম্ভব হচ্ছে না। সম্প্রতি রাজ্য সরকারের তরফ থেকে প্রাথমিক শিক্ষক পদে নিয়োগ সংক্রান্ত যে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয় সেই বিজ্ঞপ্তিকেই চ্যালেঞ্জ জানিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হলেন এক টেট উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থী। চলতি বছরের ২৩শে নভেম্বর রাজ্য সরকারের তরফ থেকে প্রাথমিক টেট সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।

এই বিজ্ঞপ্তি অনুসারে ২০১৪ সালের টেট উত্তীর্ণ এবং প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত প্রার্থীদেরই আবেদনের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি প্রশিক্ষণ কোর্সে যারা চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষা দিয়েছেন তাদেরও আবেদনের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এই বিজ্ঞপ্তিকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন জনৈক টেট উত্তীর্ণ প্রার্থী পায়েল বাগ। হাইকোর্টের বিচারপতি সব্যসাচী ভট্টাচার্য জরুরী ভিত্তিতে এই মামলার অনুমতি প্রদান করেছেন।

আবেদনকারীর অভিযোগ, ২০১৪ সালে যে প্রাইমারি টেট পরীক্ষা হয়েছিল সেখানে ছয়টি প্রশ্ন ভুল ছিল। এই প্রতিটি ভুল প্রশ্নে যারা উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করেছেন তাদের প্রত্যেককে পুরো নম্বর দিতে হবে, কলকাতা হাইকোর্টের একটি মামলায় এমন রায় দেওয়া হয়েছিল। হাইকোর্টের নির্দেশ অনুসারে, ভুল প্রশ্নের উত্তর প্রদানকারী প্রত্যেক পরীক্ষার্থীকে পুরো নম্বর দিয়ে দ্রুত নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে। মামলাকারীণীর অভিযোগ, হাইকোর্টের নির্দেশ অমান্য করা হয়েছে।

কলকাতা হাইকোর্টে পুনরায় যে মামলা দায়ের করা হয়েছে সেই মামলায় মামলাকারীণীর পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, হাইকোর্টের নির্দেশ থাকা সত্বেও সাতশোর বেশি চাকরি প্রার্থীকে নিয়োগ হয়নি। যেখানে পূর্ব নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে এখনও ধন্ধ থেকে গিয়েছে, সেখানে পুনরায় নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি কিভাবে প্রকাশ করা হলো? এই যুক্তির পরিপ্রেক্ষিতেই হাইকোর্টে পুনরায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। আগামী শুক্রবার এই মামলার শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে। মোট কথা, প্রাইমারি টেটে নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে আবারও একবার জল্পনার সূত্রপাত হলো।