শীত পরলেই গলা ব্যথা! জেনে নিন গলা ব্যথা সারানোর ঘরোয়া উপায়

19
শীত পরলেই গলা ব্যথা! জেনে নিন গলা ব্যথা সারানোর ঘরোয়া উপায়

শীতকালে যাদের টনসিলের সমস্যা আছে তারা প্রায়ই গলাব্যথা তে ভুগে থাকেন। আবার গরমকালেও তীব্র গরমে ঘাম বসে গিয়ে ঠান্ডা লাগা এমনকি গলাব্যথা পর্যন্ত হতে পারে।

বর্তমানে গোটা দেশজুড়ে করণা তীব্র লীলা চালাচ্ছে। করোনার সংক্রমনের প্রাথমিক লক্ষণ হলো গলা ব্যাথা সাথে জ্বর অনেক সময় জ্বর না থাকলেও থাকছে খুসখুসে কাশি। তাই গলা ব্যথা হলে প্রথমে করোনা ভেবে ভয় পাবেন না। গলা ব্যথার জন্য খুবই কাজে আসে নুন জলের গার্গল।

গলা ব্যথা হলে নুন জলের ভাপ নিলে গলা ব্যথা দ্রুত সেরে যায়। কান মাথা ভালো করে জড়িয়ে গরম জলে নুন দিয়ে দিনে দুবার ভাব নিলে গলা ব্যথা সেরে যাবে।

গলা ব্যথার ঔষধ হল লবঙ্গ। দুটো লবঙ্গ মুখে রেখে দিন কিছুক্ষণের জন্য। লবঙ্গ দুটো নরম হয়ে গেলে চিবিয়ে গিলে নিন খুব তাড়াতাড়ি গলা ব্যথা সেরে যাবে।

রসুনও গলা ব্যাথা সারাতে সাহায্য করে। রসুনের মধ্যে থাকা অ্যালিসিন গলা ব্যথার জন্য দায়ী ব্যাকটেরিয়া কে মারতে সাহায্য করে। রসুন কাঁচা খেতে পারেন বা রান্না করে খেতে পারেন।

বহুকাল আগে থেকেই মধু তার অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল এবং অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি বৈশিষ্ট্যগুলির জন্য পরিচিত লাভ করে আসছে। মধু গলা ব্যথা সারাতে সাহায্য করে। এক কাপ গরম জলে এক চামচ মধু মিশিয়ে দিনে দুই থেকে তিনবার পান করলে খুব তাড়াতাড়ি গলা ব্যাথার উপশম কমে যাবে।

পাতিলেবু আমাদের শরীরে টক্সিন দূর করতে সাহায্য করে। এক গ্লাস গরম জালিম একটি পাতি লেবুর রস এবং এক চামচ মধু মিশিয়ে দিনে দু’বার খান তাহলে টনসিল এবং গলা ব্যথার মত সমস্যা দূর হয়ে যাবে।

হলুদের মধ্যে আছে অ্যান্টি ইনফ্লামেটরি গুন। যা গলা ব্যথা নিরাময়ে সাহায্য করে। এছাড়াও হলুদের গুনাগুন আছে সকালে এক টুকরো কাঁচা হলুদ খেতে পারলে গলা ব্যথা ছাড়া শরীরের অনেক রোগ দূরীভূত হয়।

কয়েক ফোটা দারুচিনি তেলের সাথে মধু মিশিয়ে ব্যবহার করুন খুব তাড়াতাড়ি এই টোটকাটি গলা ব্যথা দূর করতে সাহায্য করবে।

পাতার মধ্যে আছে অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল গুন। গরম জলে কয়েক টুকরো আদা দিয়ে সেই জলে গারগেল করুন অনেক রোগ দূর হবে।