অনুব্রত মণ্ডলের অণ্ডকোষে সাইনাস! সেটা কী রোগ জানুন

11
অনুব্রত মণ্ডলের অণ্ডকোষে সাইনাস! সেটা কী রোগ জানুন

তৃতীয় বারের জন্য সিবিআই হাজিরা এড়িয়েছেন অনুব্রত মণ্ডল। তিনি দাবি করেছেন, সে অসুস্থ। কী অসুস্থতা, তা সিবিআই-কে লিখিত ভাবে জানিয়েওছেন।

তিনি লিখেছেন, অণ্ডকোষে সাইনাস হয়েছে। আর সে যন্ত্রণা এমনই ভয়ানক যে শত্রুরও যেন এমন না হয়। তবে, এই অসুখ শুনেও চমকে উঠছেন অনেকে। নেটিজেনদের একাংশ আবার করছেন নানারকম ব্যঙ্গও। কারণ সাইনাস তো সাধারণত মাথায় হয়। সাইনাসের ব্যথার সঙ্গে অনেকেই পরিচিত।

অসুখটি শুনতে যতই আশ্চর্যের হোক না কেন, ডাক্তারবাবুরা কিন্তু মোটেই একে হাল্কা চোখে দেখছেন না। ‌সাইনাস এ ক্ষেত্রে একে অ্যাবনর্মাল ট্র্যাক্টও বলা চলে। যার বাইরের দিকটা থাকে চামড়ার বাইরে, আর শরীরের ভেতরে থাকে এর ভেতরের অংশ। ট্র্যাক্ট বা সাইনাস এই দুই অংশের মধ্যে সংযোগ স্থাপন করে। অণ্ডকোষে যদি কোনও সংক্রমণ বা ইনফেকশন হয়, তবে পুঁজ বেরোতে পারে। এই পুঁজ যদি সার্জিক্যাল অপারেশন করে বের না করা হয়, তাহলে ভেতরে জমা থাকতে থাকতে একটা ট্র্যাক্ট তৈরি করে বাইরে ফেটে বেরোতে পারে। একেই সাইনাস বলে।

শরীরের যে কোনও জায়গাতেই এই সাইনাস হতে পারে। পুরুষের টেস্টিস বা শুক্রাশয় যে থলির মধ্যে থাকে, তাকে বলে স্ক্রোটাম। স্ক্রোটামে ইনফেকশন হয়ে ট্র্যাক্ট তৈরি করে পুঁজ বেরোলে তাকে সাইনাস ইন স্ক্রোটাম বা স্ক্রোটা বলে। ক্রনিক ইনফেকশন টেন্ডেন্সি থাকলে যে কারও যে কোনও জায়গায় সাইনাস হতে পারে।

টিউবারকিউলোসিস বা টিবি ও ক্যানসার বা ম্যালিগন্যান্সির ক্ষেত্রে সাইনাস হওয়ার প্রবণতা বাড়ে। যে কোনও বয়সেই হতে পারে এই সংক্রমণ। ডায়াবেটিক রোগীদের রক্তে শর্করার মাত্রা মাত্রাতিরিক্ত বেড়ে গেলেও সাইনাসের প্রবণতা বাড়ে। এই সমস্যার চিকিৎসায় সাইনাস ট্র্যাক্ট টিকে পুরো কেটে বাদ দিয়ে দিতে হয়।

পাশাপাশি যে সংক্রমণের কারণে পুঁজ বেরিয়ে ট্র্যাক্ট তৈরি করছে, সেই সংক্রমণকেও পুরোপুরি বাদ দেওয়ার বন্দোবস্ত করতে হবে। অনুব্রত মণ্ডলের সেই চিকিৎসাই চলছে এখন।