মার্কিন মুলুকের নতুন প্রেসিডেন্টের আমলেও চীন-আমেরিকা কূটনৈতিক সংঘাত অব্যাহত

7
মার্কিন মুলুকের নতুন প্রেসিডেন্টের আমলেও চীন-আমেরিকা কূটনৈতিক সংঘাত অব্যাহত

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের কূটনৈতিক সম্পর্কের উত্তেজনা আর্ন্তজাতিক মহলের অবিদিত নেই। মার্কিন মুলুকের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের আমলে চীন-আমেরিকা কূটনৈতিক সংঘাত সর্বোচ্চ মাত্রা লাভ করেছিল। মার্কিন মুলুকের নতুন প্রেসিডেন্টের আমলেও সেই ধারা অব্যাহত রইলো। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের আমলে চীনের উপর আমেরিকার চাপ বেড়েছে বৈ কমেনি।

পরিস্থিতি বিবেচনা করে এখন আর সংঘাতের পথে নয়, আলোচনা মারফত আমেরিকার সঙ্গে সমস্যা মিটিয়ে নিতে চাইছে ড্রাগনের দেশ। আমেরিকা-চিন কূটনৈতিক সম্পর্ক নিয়ে একটি সেমিনারে বক্তব্য রাখতে গিয়ে চীনের বিদেশমন্ত্রী ওয়াং ই সম্প্রতি এমনই আভাস দিলেন। উল্লেখ্য, চিনা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সাংস্কৃতিক দল ও বাণিজ্যিক সংস্থাগুলির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে আমেরিকা।

এদিনের সেমিনারে বক্তব্য রাখতে গিয়ে চিনা বিদেশ মন্ত্রী চীনের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা সরিয়ে নেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন। এদিন তিনি বলেন, চিনের কমিউনিস্ট পার্টি ও রাজনৈতিক কাঠামোর বিরুদ্ধে কুৎসা ছড়াচ্ছে আমেরিকা। আমেরিকার এই কাজ থেকে বিরত থাকা উচিত। হংকং, শিনজিয়াং ও তিব্বতের মতো ইস্যুগুলি নিয়ে আমেরিকার কোনোরকম হস্তক্ষেপ করা উচিত নয় বলেই ‌ মন্তব্য করেছেন ওয়াং ই।

চিনা সরকারই সংবাদমাধ্যম “গ্লোবাল টাইমস” এর প্রতিবেদন অনুসারে, ভারত-সহ ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে মার্কিন মিত্র দেশের জোট ক্রমাগত চীনের মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই এখন আপাতত আর সংঘাতের পথে নয়, আমেরিকার সঙ্গে আলোচনার পথেই এগোতে চাইছে শি জিনপিংয়ের প্রশাসন।