ভ্যাক্সিন নেওয়ার পরেই অসুস্থ স্বেচ্ছাসেবক, বন্ধ করা হল অক্সফোর্ড অ্যাসট্রোজেনিকের ভ্যাক্সিন ট্রায়াল

6
ভ্যাক্সিন নেওয়ার পরেই অসুস্থ স্বেচ্ছাসেবক, বন্ধ করা হল অক্সফোর্ড অ্যাসট্রোজেনিকের ভ্যাক্সিন ট্রায়াল

এমনিতেই যে সমস্যার কথা শোনা যাচ্ছে আশেপাশে, যেভাবে সংক্রমণ বেড়েই চলেছে সেখানে থেকে করোনা ভ্যাকসিন একমাত্র সঠিক পথ দেখাতে পারবে বলেই মনে করছে সকলে। কিন্তু এবার যদি সর্ষের মধ্যেই থাকে ভূত? আজ্ঞে হ্যাঁ এবার অক্সফোর্ডের ভ্যাক্সিনের চূড়ান্ত ট্রায়ালেই দেখা দিল এক বিশাল অসুবিধা। টিকা নেওয়ার সাথে সাথেই একেবারে অসুস্থ হয়ে পরল এক স্বেচ্ছাসেবক, আর তারফলেই সাথে সাথে বন্ধ করে দেওয়া হল অক্সফোর্ড অ্যাসট্রোজেনিকের ভ্যাক্সিন ট্রায়াল।

এখন ভ্যাক্সিনের ফলেই কি সে অসুস্থ হয়ে পরল না আছে অন্য কোনো কারণ, এটা নিয়েই উঠেছে প্রশ্ন। তবে এই প্রশ্নের সঠিক উত্তর না পাওয়া অবধি ট্রায়াল বন্ধ থাকবে বলেই জানা গেছে। এই ঘটনা ঘটেছে গতকাল মঙ্গলবার, আর সেখানেই অ্যাস্ট্রোজেনেকার তরফ থেকে জানানো হয়েছে আসলে এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করার পরেই এক স্বেচ্ছাসেবক অসুস্থ হয়ে পরে, সে তীব্র জ্বরে একেবারে কাবু হয়ে পরে, আর সেই কারণেই এই চূড়ান্ত ট্রায়াল একেবারে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

আসলে দেখা যদি যায়, এটা একটি রুটিন ট্রায়াল, কিছু হলেই ট্রায়াল বন্ধ করে দেওয়াই নিয়ম। তবে এমন দুর্ঘটনা এমন আগেও হয়েছে, তাই এবার সেটাকে সম্পূর্ণ ক্ষতিয়ে না দেখে ট্রায়াল শুরু করা যাবে না । সংস্হার যে রিভিউ কমিটি আছে সেটা তারা ক্ষতিয়ে দেখবে, আর তাদের তরফ থেকে সবুজ সংকেত পেলেই পুনরায় শুরু করা হবে এই ট্রায়াল। তবে একজনের শরীরেই এমন প্রভাব ফেলল কেন? সেটাই ক্ষতিয়ে দেখা হবে।

সব দেশেই এই ভ্যাকসিন ট্রায়াল শুরু হয়ে গেছিল। আমেরিকাতেই ৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবক দের দেওয়া হয়েছে ভ্যাকসিন। এদিকে ভারতে সেরামের তত্ত্বাবধানে এই ট্রায়াল শুরু হয়ে ছিল, প্রথম ও দ্বিতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল। সবার প্রথমে ভাবা হয়েছিল এই অক্সফোর্ডের ভ্যাক্সিন করোনা প্রতিষেধক হিসেবে অনেকটাই এগিয়ে, কিন্তু এবার সেটা মানুষের মনে প্রশ্ন তৈরী করল, যা কিনা প্রতিষেধকের দৌড়ে অনেকটাই পিছিয়ে গেল অক্সফোর্ডের ভ্যাক্সিন।