গায়ের রং কালো বলে আজও ব্যাঙ্গ বিদ্রুপের স্বীকার হন ত্রিনয়নী খ্যাত অভিনেত্রী শ্রুতি দাস

10
গায়ের রং কালো বলে আজও ব্যাঙ্গ বিদ্রুপের স্বীকার হন ত্রিনয়নী খ্যাত অভিনেত্রী শ্রুতি দাস

কালো হলেও মুখটা মিষ্টি, কালো তো কি হয়েছে দেখতে বেশ ভালো, এই কথাগুলি প্রায় বলতে শোনা যায় আমাদের সমাজে। কালো রঙ যেন একটি অভিশাপের মতো এবং সেই রঙের মধ্যে সুন্দর মুখটি সান্ত্বনা স্বরূপ। বডি শেমিং অথবা এইরকম কথা আমাদের মাঝেমাঝে শুনতে হয়। ঠিক তেমনই একটি মেয়ে হলো আমাদের সকলের প্রিয় অভিনেত্রী শ্রুতি দাস।

নিজে স্বপ্নপূরণের উদ্দেশ্যে নিয়ে কাটোয়া থেকে মহানগরীতে পা রেখেছিলেন তিনি। পড়াশোনা করার পাশাপাশি নিজের স্বপ্নকে সত্যি করার জন্য যথেষ্ট পরিশ্রম করেছেন তিনি। পড়াশোনার ফাঁকে নিজের স্বপ্নকে সত্যি করার জন্য টলিউডে প্রথম অডিশন এর সুযোগ পেয়েছিলেন তিনি। প্রথম হাতে খড়ি হয় জনপ্রিয় বাংলা চ্যানেলের সিরিয়াল ত্রিনয়নী তে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করে।

ছবিতে তাকে দেখা যাচ্ছে দেশের মাটির সিরিয়ালে। এখানে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করছেন তিনি। কিন্তু ক্যারিয়ারে অনেকটাই এগিয়ে গেলেও এখনো গায়ের রং কালো বলে তাকে কথা শুনতে হয়। ধারাবাহিক দেশের মাটি সিরিয়ালে নোয়া কে এই নিয়ে বিদ্রুপ করেছেন অনেকে। সিরিয়ালে গ্রামের উচ্চশিক্ষিতা মেয়ে নোয়া। একান্ন বর্তী পরিবারের একটি গল্প তুলে ধরা হয়েছে এই সিরিয়ালের মাধ্যমে। দুর্গাপূজা উপলক্ষে বাড়ির সকলে জমায়েত হয়েছে এক জায়গায়।

এরপর গল্পের মূল আস্তে আস্তে ঘুরে যায় অন্যদিকে। এই সিরিয়ালের অসাধারণ অভিনয় করে সকলের মন জয় করে নিয়েছেন অভিনেত্রী। ধারাবাহিকে বিপরীতে অভিনয় করেছেন দিব্যজ্যোতি দত্ত। সম্প্রতি ফেসবুকে একটি পোস্ট করেছিলেন অভিনেত্রী। যার ফলে তাকে বর্ণবিদ্বেষের শিকার হতে হয়েছে।

তার ছবিতে অনেকেই কমেন্ট করেছেন পেত্নী অথবা কুৎসিত বলে। আবার অনেকে লিখেছেন একই কাজের লোকের চরিত্রেই মানায়। আবার অনেকে ধারাবাহিক থেকে নোয়াকে সরিয়ে দেবার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন। এরকম নানা নোংরা কথা তে ভরে গেছে অভিনেত্রীর পোস্ট।

এই সমস্ত কথার যোগ্য জবাব দিতে শোনা গেলো শ্রুতিকে। তিনি কমেন্ট করে জবাব দিলেন যে, সমস্ত হিসাব তোলা রইলো সময় এলে জবাব দেব। এর বেশি দিন আর কোনো কথা বলেননি। তার মনে হয়েছে এই টুকু কথায় তাদের জন্য যথেষ্ট যারা মানুষকে সম্মান দিতে জানে না।

ব্যক্তিগত জীবনেও অভিনেত্রী যার সাথে প্রেম করতেন তিনি একদিন বলেছিলেন, প্রতিদিন কাঁচা হলুদ মাখলে ফর্সা হয়ে যাবে। এরপরই তার সঙ্গে ব্রেকআপ করে দেন শ্রুতি। এছাড়াও ইন্ডাস্ট্রিতে অডিশনের সময় একাধিকবার তাকে শুনতে হয়েছে গায়ের রং নিয়ে কটুক্তি। হিরোইনের রোলে নাকি তাকে মানায় না এ কথা শুনতে হয়েছিল তাকে। তবে সবকিছুর উত্তর একদিন দেবেন অভিনেত্রী, সেই আশাই করছেন তার ভক্তরা। এখন প্রতি তার ভালোবাসার মানুষ স্বর্ণেন্দু সমাদ্দার কে নিয়ে ভালোই রয়েছেন।