দেখুন গাইডলাইন দক্ষিণ কোরিয়ার, করোনা পরবর্তী দুনিয়া কেমন হবে?

63
দেখুন গাইডলাইন দক্ষিণ কোরিয়ার, করোনা পরবর্তী দুনিয়া কেমন হবে?

আমরা এখন করোনা আবহের মধ্যে দিন কাটাচ্ছি, কিন্তু এই করোনা যখন পৃথিবী থেকে বিদায় নেবে তখন কি সব আগের মতোই থাকবে, না কিছুর বদল ঘটবে? এটাই এখন সবার প্রশ্ন? কারণ আমরা বাড়িতে বসে থাকলেও বুঝতে পারছি পৃথিবী আর আগের মতো নেই। তাই অনেকে বলছে পৃথিবী আগের মতো আর কোনোভাবেই থাকবে না, জনসংখ্যা হয়ে যাবে অর্ধেক। অনেকে বলছে সব দিক থেকেই পৃথিবী সেজে উঠবে নতুনভাবে। কিন্তু এবার দক্ষিণ কোরিয়া তাদের তরফ থেকে একটি গাইড লাইন তৈরী করেছে, যাতে আগামী পৃথিবী কেমন হবে।

দক্ষিণ কোরিয়ার কথা যদি বলা যায়, তাহলে সেখানে করোনাকে হারানো সম্ভব হয়েছে, কারণ তারা সেখান থেকে উঠে এসেছে। আর সেই কারণেই সিওল প্রশাসন একটি নির্দেশিকা বা গাইড তৈরী করেছে আগামী ২ বছরের পৃথিবীর জন্য। মানুষ আগামী দুবছর কিভাবে চলবে, কেমন আচরণ করবে, কি কি নিয়ম মেনে চলবে ও কি কি এম্ন কাজ আছে যা করবেন না। প্রথমেই একটা কথা বলা হয়েছে সেটা হল দুরত্ব বজায় রাখবে, দেখা হলেই যে জড়িয়ে ধরা সেটার থেকে দুরেই থাকতে হবে, মাস্ক বাধ্যতামূলক, করমর্দন তো কোনোভাবেই করা যাবে না, দূরের থেকে নমস্তে টাকেই বেছে নিতে হবে। এদিকে পরিবহণের ক্ষেত্রেও বলেছেন তারা। প্রি বুকিং ছাড়া এখন আর কোনোভাবেই কোথাও যাওয়া যাবে না। আর টাকা পয়সার ক্ষেত্রে অনলাইন ট্রানজেকশনকেই বেছে নিতে হবে।

এবার আসা যাক খাবারের দিকে, দক্ষিণ কোরিয়া সরকার জানিয়ে দিয়েছে খাবারের দিকেও ভালোভাবে লক্ষ্য করে চলতে হবে জনগণের। এক জনের প্লেট থেকে খাওয়া যাবে না,ক্লাব, রেস্টুরেন্ট গুলোতে বেশী ক্ষণ সময় কাটানো যাবে না, খাবার ওর্ডার করলে সেটা তাড়াতাড়ি পৌছে দিতে হবে। এদিকে সিনেমা হল, শপিং মল সেখানেও নিয়ম মেনে চলতে হবে বলেও জানিয়েছেন। যেভাবেই হোক প্রত্যেকটা কাজে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতেই হবে। এদিকে দক্ষিণ কোরিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী কিম গ্যাং লিপের তরফ থেকে জানা গেছে, বিশেষজ্ঞদের মতে আগামী ২ বছর এই ভাইরাসের উপস্থিতি, প্রভাব থাকবে, তাই মানুষকে আগামী ২ বছর খুব সাবধানের মধ্যে দিন কাটাতে হবে। মানুষকে সামাজিক ও অর্থনৈতিক কাজেও নিয়মটাকে আগে রেখেই চলতে হবে।