সম্প্রতি মহাকাশে আরও একটি চাঁদের খোঁজ পেল বিজ্ঞানীরা

45
সম্প্রতি মহাকাশে আরও একটি চাঁদের খোঁজ পেল বিজ্ঞানীরা

মহাকাশপ্রেমীই হোন মন বা প্রকৃতিপ্রেমী, চাঁদের প্রতি সকলেরই কম-বেশি আকর্ষণ থাকে। আমাদের সৌরমণ্ডলে চাঁদ একটিই। তার অপরূপ সৌন্দর্য্যে মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে থাকেন প্রকৃতিপ্রেমীরা। এবার মহাকাশে আরো একটি চাঁদের খোঁজ পেলেন মহাকাশ বিজ্ঞানীরা। অবশ্য আমাদের সৌরমণ্ডলে নয়, এই চাদের জন্ম হয়েছে আমাদের সৌরমন্ডল থেকে বেশ কিছু দূরে আরেকটি সৌরমন্ডলে। অসীম এই মহাশূন্যের অনেকগুলি সৌরমন্ডল রয়েছে। তেমনই একটি সৌরমন্ডলে জন্ম নিয়েছে নতুন চাঁদ।

আমাদের সৌরমন্ডল থেকে প্রায় ৩৭০ আলোকবর্ষ দূরে রয়েছে এই সৌরমন্ডল। এই সৌরমণ্ডলের রয়েছে একটি সূর্য। বয়সে সে একেবারেই নবীন। তবে পিডিএস ৭০ নামক এই নক্ষত্রটির ভর আমাদের সৌরমণ্ডলের সূর্যের মতোই বলে জানাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। এর রং কমলা। পৃথিবী, বুধ, বৃহস্পতির মতো একাধিক গ্রহ এই নক্ষত্রকে কেন্দ্র করে ঘুরে চলেছে। তার মধ্যে একটি গ্রহ আবার হুবহু বৃহস্পতির মতো। এই গ্রহ থেকেই নতুন চাঁদের জন্ম হয়েছে।

চিলি আটাকামা মরুভূমির ALMA অবজারভেটরি থেকে এই নতুন চাঁদের সন্ধান পেয়েছেন মহাকাশ বিশেষজ্ঞরা। নবীন নক্ষত্র পিডিএস ৭০কে কেন্দ্র করে ঘুরছে যে গ্রহগুলি, তার একটি থেকে নতুন চাঁদের জন্ম হয়েছে। এই উপগ্রহের চারপাশে রয়েছে একটি গ্যাসের বলয়। বিজ্ঞানীদের ভাষায় এই গ্যাসের বলয়কে বলে সার্কামপ্ল্যানেটরী ডিস্ক। গ্রহ এবং উপগ্রহের জন্ম কিভাবে হয়, সে সম্পর্কে সম্যক ধারণা পেয়েছেন মহাকাশ বিশেষজ্ঞরা।

গ্রানোবল ইউনিভার্সিটির জ্যোতির্বিজ্ঞানী মরিয়াম বেনিস্টির মতে মহাকাশ গবেষণার ক্ষেত্রে এই পর্যবেক্ষণ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। মহাকাশে একটি গ্রহের জন্ম কিভাবে হয়, সে সম্পর্কে ধারণা লাভ করার জন্য বেশ কয়েক বছর অপেক্ষা করতে হয়েছে তাদের। এই প্রথমবার সেই থিওরি পরীক্ষার সুযোগ এলো। গ্রহ থেকে উপগ্রহের জন্ম সম্পর্কে ধারণা পেলেন বিজ্ঞানীরা।