মিষ্টি মুখ করিয়ে মন্দির নির্মাণের অর্থ তুলে দিয়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির নজীর গড়ল সরিফুল ইসলাম

7
মিষ্টি মুখ করিয়ে মন্দির নির্মাণের অর্থ তুলে দিয়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির নজীর গড়ল সরিফুল ইসলাম

ভারতের মতো দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি, যেটা খুবই থাকা দরকার। কিন্তু পরিস্থিতির হিসেবে আজকাল তেমন কোনও নজীর দেখা যায় না। তবে তার, মধ্যেও আছে কিছু ব্যাতিক্রম। সম্প্রতি রাম মন্দির গড়ে তোলার জন্য স্বেচ্ছাসেবকরা দেশের সব রাজ্যেই আর্থিক অনুদান সংগ্রহ করে চলেছে। আর এর মধ্যেই উত্তরবঙ্গের জলপাইগুড়িতে এক সংখ্যা লঘু পরিবার সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির যে অন্যতম নজীর গড়ে তুলল সেটা সত্যি বিস্ময়কর। হিন্দু পরিষদের মানুষদের মিষ্টি মুখ করিয়ে মন্দির নির্মাণের অর্থ সাহায্য তুলে দেওয়া হয় তাদের হাতে। আর এই দানকেই সেরা আর্থিক সাহায্য বলে অবিহিত করেছে হিন্দু পরিবার পর্ষদ।

পশ্চিমবঙ্গের সব জেলাতেই এই আর্থিক সাহায্য সংগ্রহ করে চলেছে স্বেচ্ছাসেবকেরা। আর সেই নিয়ম মেনেই জলপাইগুড়িতে আর্থিক সাহায্যের কাজ চলাকালীন ঘটে এই ঘটনা। সেই ব্যাক্তির নাম সরিফুল ইসলাম, যিনি জলপাইগুড়ির ১৪ নং ডাঙ্গাপাড়া এলাকার বাসিন্দা। সেখানে স্বেচ্ছাসেবকেরা অনুদান গ্রহণ করতে ঢুকলেই সরিফুল তাদের আতিথেয়তায় ভরিয়ে দেয়। পেশায় একজন দর্জি হলেও তার মন যে কতটা বড় সেটার কথা বিশ্ব হিন্দু পরিবারের সদস্যেরা জানিয়েছেন।

বাড়িতে ঢুকতেই তাদের চেয়ার পেতে বসার ব্যবস্থা করে, সাথে আলাপচারিতা ও মিষ্টির ব্যবস্থা করে সারিফুল। সবাইকে মিষ্টি খাইয়ে আর্থিক সাহায্য তুলে দেয় সারিফুল। এই নিয়ে জলপাইগুড়ির বিশ্ব হিন্দু পরিষদের সম্পাদক কৃষ্ণেন্দু জানায়, সারিফুল নিজের সাধ্যমতো আর্থিক সাহায্য করেছে আর তার এই সাহায্য পেয়ে আপ্লুত সবাই। কারণ তিনি একজন বড় মনের মানুষ।