পশ্চিমবঙ্গে রেলের টিকিট জালিয়াতির ৫ জন পাণ্ডাকে গ্রেপ্তার করল আর পি এফ

8
পশ্চিমবঙ্গে রেলের টিকিট জালিয়াতির ৫ জন পাণ্ডাকে গ্রেপ্তার করল আর পি এফ

এবার বলা যেতে পারে ভারতীয় রেলের এক বড় সাফল্য। কারণ পশ্চিমবঙ্গে রেলের টিকিট জালিয়াতির ৫ জন বড় বড় মাথাকে পাকরাও করা হল। এদের জ্বালায় পূর্ব রেলের, দক্ষিণ পূর্ব রেলের, ও উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেলের একেবারে রাতের ঘুম উড়ে গিয়েছিল। কিন্তু এবার মনে হচ্ছে কিছুটা হলেও স্বস্তি পেলো তারা, প্রথমে লঙ্কা এবার সেটাকে আমে পরিণত করেছিল তারা। কারণ সবজি থেকে ফল কোনটাকেই বাদ দেয় নি তারা।

এর আগে অবশ্য ২০১৭ সালে গ্রেফতার করা হয়েছিল এই টিকিট জালিয়াতির অন্যতম মূল মাথাকে, আর সেখান থেকেই জানা গিয়েছিল তারা রেড মির্চি নামে একটি সফটওয়ার ব্যবহার করেই এই কাজ করত। এবার ফের আরও ৫ জন মূল চক্রিকে গ্রেফতার করল পুলিশ। আর এবার তাদের কাছে জিজ্ঞাসা করা হলে জানা গেলো তারা নাকি রিয়েল ম্যাঙ্গো সফটওয়ার ব্যবহার করেই টিকিট জালিয়াতি করত। কিন্তু কাহিনী এখানেই শেষ হচ্ছে না, কারণ এই টিকিট জালিয়াতির জাল অনেক দূর বিস্তৃত।

এখানে সুবীর বিশ্বাস ওরফে অমিত রায় ওরফে মাটিয়ার খান এই সফটওয়্যার ও টিকিট বিক্রির দায়িত্বে ছিলেন, শুভেন্দু বিশ্বাস ওরফে ম্যাঙ্গো স্যার, রাহুল রায় ছিলেন বিজনেস ম্যানেজার ও চন্দ্র গুপ্ত ছিলেন অ্যাডমিন ও সিস্টেম ডেভলপার।
এই জাল যে অনেকদূর বিস্তৃত সেটা জানা গেছে তাদের কাছ থেকেই, হায়দ্রাবাদ, গুজরাট, পশ্চিমবঙ্গে ছড়িয়ে আছে তাদের নেটোয়ার্ক, এই কাজের সাথে ১৫০০ জন লোক যুক্ত আছে। এদিকে ১৭৬ জন টিকিট বিক্রির দায়িত্বে আছে।