রাজ্যজুরে ফের ঊর্ধ্বমুখী তাপমাত্রা তবে উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় বৃষ্টির সম্ভাবনাঃ আবহাওয়া দপ্তর

13
রাজ্যজুরে ফের ঊর্ধ্বমুখী তাপমাত্রা তবে উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় বৃষ্টির সম্ভাবনাঃ আবহাওয়া দপ্তর

ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে রাজ্যের তাপমাত্রা কিছুটা হলেও নেমেছিল। ঘূর্ণিঝড়ের প্রাক মুহূর্ত থেকেই রাজ্য জুড়ে শুরু হয়ে গিয়েছিল বৃষ্টিপাত। ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবেও রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছিল। যার ফলে একদিকে যেমন তীব্র সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছিল মানুষকে, অপরদিকে তেমনি রাজ্যের উষ্ণতায় পারদও কিছুটা নেমেছিল। ফলে আপাত স্বস্তিতে ছিলেন বাংলার মানুষ।

কিন্তু ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব কেটে যেতে না যেতেই ফের অস্বস্তিজনক আবহাওয়ার সম্মুখীন বাংলা। ঘূর্ণি ঝড়ের গতিপথ বাংলা ছেড়ে ঝাড়খণ্ডের দিকে এগিয়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই রাজ্যের তাপমাত্রা বাড়তে শুরু করেছিল। বর্তমানে ঘূর্ণিঝড় পৌঁছে গিয়েছে উত্তরপ্রদেশের সীমান্তে। তার শক্তিও অনেকটাই কমে এসেছে। যার প্রভাবে বাংলার তাপমাত্রা আবার ঊর্ধ্বমুখী। আবহাওয়াজনিত অস্বস্তিতে ভুগছেন মানুষ।

এরই মাঝে আবার আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের তরফ থেকে হতাশাজনক খবর পাওয়া যাচ্ছে। হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, আগামী ৪৮ ঘন্টায় রাজ্যের তাপমাত্রা আরও পাঁচ ডিগ্রী বাড়তে চলেছে। শুধু পশ্চিমবঙ্গেই নয়, দিল্লিসহ উত্তর ভারতেরও একাধিক রাজ্যে তাপমাত্রার পারদ বাড়ছে। দক্ষিণবঙ্গের তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেলেও অবশ্যই আগামী কয়েকদিনে উত্তরবঙ্গের বেশকিছু জেলায় বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

দার্জিলিং, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি এবং মালদহে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনার কথা জানানো হয়েছে। অন্যান্য জেলাগুলিতে অবশ্য মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানাচ্ছে মৌসম বিভাগ। দক্ষিণ বঙ্গের জেল গুলির মধ্যে পশ্চিম বর্ধমান এবং বীরভূমে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনার কথা জানানো হয়েছে। তবুও গরমজনিত অস্বস্তি কমছে না।