পান মশলার বিজ্ঞাপন করতে অস্বীকার! ৯ কোটি টাকার অফার রিজেক্ট করলেন কার্তিক আরিয়ান

11
পান মশলার বিজ্ঞাপন করতে অস্বীকার! ৯ কোটি টাকার অফার রিজেক্ট করলেন কার্তিক আরিয়ান

বর্তমানে যারা বিভিন্ন ভাবে জনসাধারণের কাছে জনপ্রিয় তাদের এখন অনেক বুঝে স্টেপ নিতে হয় তিনি যাই করুন। বিশেষ করে যদি সেটা সমাজকে রিপ্রেজেন্ট করে। আগের মতো দিন আর নেই। এখন সোশ্যাল মিডিয়ার যুগ। খুব সহজেই একটি মানুষ তাঁর বক্তব্য রাখতে পারেন গোটা দুনিয়ার কাছে। তাই এখন সেলিব্রিটিদের অনেক বুঝে কাজ করতে হয়। আর সেই রকমই এই নতুন প্রজন্মের অভিনেতা কার্তিক আরিয়ান কে দেখা গেলো বুদ্ধির সাথে নিজের ইমেজ বজায় রেখে নিজের ভক্তদের আরো প্রিয় হয়ে উঠতে।

জানা যাচ্ছে এক পান মশলার বিজ্ঞাপন করতে অস্বীকার করে ৯ কোটি টাকার অফার রিজেক্ট করেন তিনি। শুধু তাই নয় এই হ্যান্ডসাম অভিনেতা কার্তিক ওই সংস্থাকে জানান, সমাজের প্রতি তাঁর দায়বদ্ধতা রয়েছে, তাই কোনওভাবেই এই বিজ্ঞাপন তিনি করবেন না। সঙ্গে নিজের ইমেজের কথা ভেবেও বিজ্ঞাপন থেকে পিছিয়ে এসেছেন কার্তিক। আর এতেই সকল অনুরাগীদের মন জয় করে নিয়েছেন তিনি আরো একবার। কিছুদিন আগের কথা। হটাৎ করেই বেশ কিছু বলিউড নায়কদের বয়কটের ডাক ওঠে।

এখন অবশ্য বয়কট একটা ট্রেন্ডি শব্দ হয়ে দাড়িয়েছে। এই নায়কদের বয়কট করার কারণ হলো তারা একটা পান মশলার কোম্পানির বিজ্ঞাপন করেছেন যে কোম্পানি নানা রকম তামাকজাত দ্রব্যও বিক্রি করেন। ফলে আমজনতার অভিযোগ তাদের প্রিয় অভিনেতারা কেনো এরকম একটি খারাপ নেশা জাতীয় প্রোডাক্টের হয়ে বিজ্ঞাপন করবেন।
এই বিতর্কের মধ্যে নাম জড়ায় শাহরুখ খান, অজয় দেবগন ও অক্ষয় কুমারের।

তবে ফ্যান দের থেকে এরকম প্রতিক্রিয়া দেখার পর অক্ষয় কুমার নিজের ভুল স্বীকার করেন। তিনি তাঁর সমস্ত ফ্যানদের উদ্দেশে সোশ্যাল মিডিয়ায় বলেন, ”আমি দুঃখিত। আমি আমার সমস্ত ভক্ত ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের কাছে ক্ষমা চাইছি। গত কয়েকদিনে আপনাদের প্রতিক্রিয়া আমাকে গভীর ভাবে প্রভাবিত করেছে। আমি তামাকজাত পণ্যের বিজ্ঞাপন কখনও করিনি এবং ভবিষ্যতেও করব না। বিমল এলাইচির সঙ্গে আমার যুক্ত হওয়ার কারণে আপনাদের ভাবাবেগকে আহত করেছে। সমস্ত নম্রতার সঙ্গে আমি পিছিয়ে এলাম। ওই বিজ্ঞাপন বাবদ নেওয়া সমস্ত টাকা আমি কোনও ভাল কাজে দান করব। তবে ওই ব্র্যান্ডের বিজ্ঞাপনটি এরপরও চলতে পারে, যতদিন না আমার সঙ্গে তাদের চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়। কিন্তু আমি কথা দিচ্ছি, ভবিষ্যতে কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে আমি অত্যন্ত মনোযোগী থাকব। পরিবর্তে এভাবেই আপনাদের ভালবাসা ও শুভাকাঙ্ক্ষা পেতে চাই।”

এইভাবেই তিনি ওই বিজ্ঞাপন থেকে সরে আসেন। সকল অভিনেতাই নিজেদের ফ্যানদের মনঃক্ষুণ্ণ হয় এমন কাজ করতে চান না। তাই কার্তিক আরিয়ানের এই সিদ্ধান্ত সকল নেটিজেনদের এক নিমিষেই মন জয় করে নিয়েছে।