সম্প্রতি একটি বিরল প্রজাতির পেঁচা উদ্ধার ঘিরে শুরু হল চাঞ্চল্য

8
সম্প্রতি একটি বিরল প্রজাতির পেঁচা উদ্ধার ঘিরে শুরু হল চাঞ্চল্য

হুতোম প্যাঁচার সঙ্গে বাংলা সাহিত্যের প্রথম প্রথমে যোগাযোগ থাকলেও লক্ষ্মীপেঁচার সঙ্গে কিন্তু আমাদের ধার্মিক একটি সংযোগ রয়েছে। লক্ষ্মী পেঁচা কি আমরা আমার লক্ষ্মীর বাহন হিসাবে জানি বরাবর। কোন জায়গায় আমরা যখন পেঁচাকে দেখতে পাই তখন সঙ্গে সঙ্গে আমরা তাকে সুরক্ষিত এবং সংরক্ষিত করার চেষ্টা করি। অন্য যে কোন পাখির থেকে খারাপ দেখতে হলেও পেঁচা কে আমরা মা লক্ষ্মীর বাহন হিসাবে জানি। সম্প্রতি একটি এমন পেঁচা দেখতে পাওয়া গেছে যা সাধারণ প্যাঁচার মতো দেখতে নয় আবার, লক্ষ্মী পেঁচার মতো দেখতে নয়।

এই পেঁচাটির গায়ে হলুদ কাল ডোরাকাটা দাগ রয়েছে যা অন্য সাধারণ লক্ষ্মীপেঁচার গায়ে থাকে না। তবে সবকিছুর ঊর্ধ্বে গিয়ে সাথে পেঁচাটিকে এতটাই সুন্দর দেখতে লাগছে যে সকলে পেঁচাটিকে নিজের ক্যামেরাবন্দি করার চেষ্টা করেছেন। কবে পেঁচাটি যে ক্ষুধার্ত তা দেখেই বোঝা গেছে, খাবার দেওয়ার সাথে সাথে গবগব করে খাবার খেতে দেখা গেছে তাকে।

পেঁচাটিকে উদ্ধার করতে বনদপ্তর কর্মীদের আগমন হয়েছে। তারা এসে পেঁচাটিকে নিয়ে সুরক্ষিত জায়গায় রেখে এসেছেন। তবে সম্পূর্ণ বিষয়টি কোথায় ঘটেছে এবং কোথায় ক্যামেরাবন্দি করা হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি। তবে সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হবার সাথে সাথে সকলেই এই ছোট্ট পাখিটিকে নিজের ভালোবাসা জানিয়েছেন।