সম্প্রতি রাশিয়ার তুন্দ্রা অঞ্চলে দেখা গেল একটি বিশাল গর্ত, তা নিয়ে চলছে জল্পনা

8
সম্প্রতি রাশিয়ার তুন্দ্রা অঞ্চলে দেখা গেল একটি বিশাল গর্ত, তা নিয়ে চলছে জল্পনা

ভিনগ্রহীদের নিয়ে পৃথিবীবাসীর কৌতূহলের শেষ নেই। ভিনগ্রহীদের অস্তিত্বে অনেকেই বিশ্বাস করেন। তাদের ধারণা, পৃথিবীতে যেমন মানুষ রয়েছে, তেমনি মহাকাশের সুদূর কোনো এক গ্যালাক্সিতে পৃথিবীর মতোই কোনো এক গ্রহে মানুষের মতোই বিভিন্ন প্রাণী বসবাস করে। তারা হয়তো মানুষের থেকেও উন্নত। মাঝেমধ্যেই পৃথিবীতে এমন বেশ কিছু ঘটনা সামনে আসে, যা দেখে পৃথিবীবাসীর মনে হয় হয়তো কোনো এক কালে ভিনগ্রহীদের মহাকাশযান এসে নেমেছিল পৃথিবীর বুকে।

সম্প্রতি এমনই এক ঘটনা সামনে এলো। রাশিয়ার সাইবেরিয়ার তুন্দ্রা অঞ্চলের মাটিতে ১০০ ফুট গভীর এবং ৯০ ফুট চওড়া একটি বিশাল গর্ত আবিষ্কার দেখা গেছে। এই অঞ্চলে অত বড় গর্ত কিভাবে সৃষ্টি হল, তা নিয়ে জল্পনা চলছে। অ্যাডভেঞ্চার প্রেমী মানুষের মতে, কে বলতে পারে, হয়তো কোনো এক কালে এখানেই থেমেছিল ভিনগ্রহী মহাকাশচারীদের মহাকাশযান! তার ফলেই এমন গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। তবে ঠিক কি কারণে এমন গর্তের সৃষ্টি হয়েছে তার সম্পর্কে নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারেননি বিজ্ঞানীরা।

সম্প্রতি, রাশিয়ার সাইবেরিয়া তুন্দ্রা অঞ্চলের উপর দিয়ে হেলিকপ্টারে করে যাওয়ার সময় এই বিশাল গর্তটি লক্ষ্য করেন রাশিয়ার এক সাংবাদিক। তিনিই গর্তের ছবি তুলে জনসমক্ষে প্রকাশ করেছেন। তারপর থেকেই গর্ত নিয়ে নানা গুঞ্জন শুরু হয়েছে। তবে, ভিনগ্রহী মতবাদ বাদ দিয়ে গবেষকদের ধারণা, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণেই এমন গর্ত সৃষ্টি হওয়া সম্ভব। উল্লেখ্য, ২০১৩ সালে এই অঞ্চলেই অপর একটি গর্ত আবিষ্কার করা হয়েছিল।

তবে সেই গর্তের তুলনায়, নতুন আবিষ্কৃত গর্তটি অনেকটাই বড় বলে জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। এই অঞ্চলে আগে আরও আটটি বিশালাকৃতির গর্তের খোঁজ মিলেছে। যা দেখে স্থানীয়দের ধারণা, ভিনগ্রহীদের আগমনেই এই গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। তবে গর্তের মাটির নমুনা পরীক্ষা করে বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, এই ধরনের গর্ত একদিনে সৃষ্টি হতে পারে না। প্রধানত প্রবল তুষার ঝড়ের পর আবহাওয়া বদলের সময় মিথেনসহ অন্যান্য গ্যাসের বিস্ফোরণের কারণেই এমন গর্ত সৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা।