রেলের স্লিপার এবং রিজার্ভেশন কোচগুলিকে এসি কোচে বদল করার সিদ্ধান্ত নিল ভারতীয় রেল বোর্ড

11
রেলের স্লিপার এবং রিজার্ভেশন কোচগুলিকে এসি কোচে বদল করার সিদ্ধান্ত নিল ভারতীয় রেল বোর্ড

লকডাউনের জেরে দেশে দীর্ঘদিন ধরে রেল পরিষেবা বন্ধ রয়েছে। তবে এরই মাঝে ভারতীয় রেল কর্তৃপক্ষ কিন্তু যাত্রী সুবিধার্থে একের পর এক কাজ করে চলেছে। এই সময়কালের মধ্যে বিভিন্ন স্টেশন এবং রেললাইনের অসম্পূর্ণ কাজ শেষ করেছে ভারতীয় রেল বোর্ড। পাশাপাশি যাত্রীদের সুযোগ-সুবিধা কথা মাথায় রেখে নতুন নতুন সিদ্ধান্তও গ্রহণ করেছে রেল দপ্তর।

সম্প্রতি ভারতীয় রেল বোর্ডের তরফ থেকে প্রকাশিত নতুন নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে, রেলের স্লিপার কোচ এবং রিজার্ভেশন কোচগুলিকে এবার থেকে এসি কোচে বদল করে দেওয়া হবে। এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হলে সাধারণ মানুষ এবার থেকে কম খরচে এসি কামরায় যাতায়াত করতে পারবেন। ইতিমধ্যেই ভারতীয় রেল বোর্ডের তরফ থেকে রেলের সিপার কামরা গুলিকে এসি কামরায় রূপান্তরিত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এই পরিবর্তিত স্লিপার কামরাগুলির নাম রাখা হয়েছে AC-3 Tier Tourist Class। স্লিপার কামরা গুলিতে সাধারণত ৭২টি বার্থ থাকে। পরিবর্তিত এসি কামরা গুলিতে ৮৩টি বার্থ রাখা হবে বলে জানা গেছে। বিশিষ্ট সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা গেল, একেকটি স্লিপার কোচকে এসি কোচে পরিণত করতে রেলের প্রায় ২.‌৮ কোটি থেকে ৩ কোটি টাকা খরচ হবে।

একটি সাধারণ এসি থ্রি টায়ার কোচ তৈরি করতে এর থেকে ১০ শতাংশ কম খরচ হয়। তবে রেলের দাবি, এই নতুন এসি কামরা গুলি চালু হলে রেলের যা আয় হবে সেখান থেকেই খরচের টাকাটা উঠে আসবে। উল্লেখ্য, ২০০৪ থেকে ২০০৯ সালের ইউপিএ সরকারের আমলেই এই পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছিল। সেই পরিকল্পনার অংশ হিসেবে “গরিব রথ” কোচ চালু করেছিল রেল। তবে পরবর্তীকালে সেই কোচ গুলি বন্ধ হয়ে যায়।