সর্বসম্মতিক্রমে হিন্দু পরিষদের সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হলেন পদ্মশ্রী প্রাপ্ত রবীন্দ্র নারায়ন সিং

9
সর্বসম্মতিক্রমে হিন্দু পরিষদের সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হলেন পদ্মশ্রী প্রাপ্ত রবীন্দ্র নারায়ন সিং

এইবার বিশ্ব হিন্দু পরিষদের নতুন সভাপতি হতে চলেছেন ডাক্তার এবং পদ্মশ্রী পুরস্কার প্রাপ্ত রবীন্দ্র নারায়ণ সিং। বিশ্ব হিন্দু পরিষদ হল দেশের একটি হিন্দুত্ববাদী এক সামাজিক সংগঠন, এটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল ১৯৬৪ সালে। এখন গোটা বিশ্বে প্রায় ১৫০ টিরও বেশি সংস্থার রয়েছে, যেখানে এই সংগঠনের দ্বারা কাজ চলছে।

এই দলটি স্লোগান ছিল “ধর্ম রক্ষতি, ধর্ম রক্ষিত”, এর মানে হলো ধর্মকে যে রক্ষা করে, তাকে ধর্ম রক্ষা করে। আপাতত শুরু হয়েছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের কেন্দ্রীয় পরিচালক কমিটির তরফ থেকে বৈঠক এবং সেটি প্রাদেশিক মন্ডলের দুদিন বৈঠক করা হয়েছে।

প্রথম দিনে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের সংগঠনে নতুন কিছু পরিবর্তন করা হয়েছে। বিশ্ব হিন্দু পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুরেন্দ্র জৈন একটি সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন যে, সকলের সর্বসম্মতিক্রমে হিন্দু পরিষদের সভাপতি হিসেবে নির্বাচন করছেন পদ্মশ্রী রবীন্দ্র নারায়ন সিংকে ওইদিনই সহ-সভাপতির দায়িত্ব নিলেন ডাক্তার রবীন্দ্র নারায়ণ সিং।

এই ডাক্তার রবীন্দ্র নারায়ণ সিং পরিচিত সকলের কাছে ডাক্তার আরএনসি সিং। চিকিৎসাবিজ্ঞানের ব্যাপারে অসাধারণ কিছু তথ্যের জন্য ২০১০ সালে পদ্মশ্রী পুরস্কার পেয়েছিলেন। ডক্টর সিং এর বাবার নাম রাধাবল্লব সিং এবং তিনি ছিলেন বিহারের জেলা ও দায়রা আদালতের বিচারপতি। পার্টনার স্কুলে প্রথম জীবনের পড়াশোনা করেছেন এবং মেডিকেল কলেজ ছিল তার পাটনায় এবং এমবিএ পাস করেছেন তিনি পার্টনার মেডিকেল কলেজ থেকে।

তিনি লন্ডনে গিয়েছিলেন আরও উচ্চতর ডিগ্রি পাওয়ার জন্য, কিন্তু তার বাবা যখন তাকে আদেশ করে তখন তিনি পাটনায় ফিরে আসেন। তিনি যখন লন্ডনে ছিলেন সেই সময়ে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের যোগ দিয়েছিলেন। পাটনায় এসে তিনি নিজের একটি ক্লিনিক চালু করেছিলেন এবং সেখানে চিকিৎসা পরিষেবা যেভাবে তিনি দিয়েছিলেন তার জন্যই তাকে পদ্মশ্রী পুরস্কার দেওয়া হয়েছিল।