আর্থিক সংকটের মুখে পাঞ্জাব সরকার!

5
আর্থিক সংকটের মুখে পাঞ্জাব সরকার!

যবের থেকে পাঞ্জাবে নতুন সরকার এসেছে তবের থেকেই দেখা যাচ্ছে বিভিন্ন জনকল্যান মূলক কাজের সাথে যুক্ত রয়েছে তারা। প্রথমে এসেই ৩০০ ইউনিট বিদ্যুৎ বিলের ওপরে ছাড় সাথে নতুন পেনশন প্রকল্প সব মিলিয়ে বাইরে থেকে দারুণ মনে হলেও রাজকোষের ওপরে দারুণ চাপ বৃদ্ধি পাচ্ছিল। কিন্তু কে শোনে কার কথা ? যেটা এখন এই চাপ রাজকোষের ওপরে পরেছে যার কারণে একেবারে দারুণ চাপের মুখে পরে গেছে পাঞ্জাব সরকার। এখন তাদের হিমশিম খেতে হচ্ছে রাজ্যের সরকারী কর্মীদের বেতন দিতেই।

সূত্রের মাধ্যমে যেটা জানা যাচ্ছে, মাসের প্রথম দিকেই বেতম পান পাঞ্জাবের সরকারি কর্মীরা, কিন্তু দেখা যাচ্ছে জুলাই মাসের বেতনও এখন তাদের পুরোপুরি দেওয়া হয় নি। বেতন দেবেই বা কিভাবে, রাজ্য সরকারী কর্মীদের বেতন দেওয়ার মতো অর্থই নেই পাঞ্জাব সরকারের রাজকোষে। সূত্রের মাধ্যমে যে খবর পাওয়া গেছে কর্মীদের এক মাসের বেতন দেওয়ার জন্য ২ হাজার ৫৯৭ কোটি টাকা খরচ হয় পাঞ্জাবের সরকারের। কিন্তু এই টাকা এখন তারা কোথা থেকে জোগাড় করবে সেই নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন।

কিন্তু পাঞ্জাব সরকারের দাবি কোনো রকম অর্থ সংকট হয় নি, এটা একটি শুধুমাত্র ভুল খবর ছড়িয়েছে সর্বত্র। বুধবারের মধ্যে সর কর্মীরা বেতন পেয়ে যাবে বলে দাবি করেছেন পাঞ্জাবের সরকার। তবে এই অর্থ সংকট কিন্তু নতুন নয়। এর আগেও এমন দৃশ্য দেখা গেছে বহুবার। এক সময়কার শস্য শ্যামলা এই রাজ্য গত ১০-১৫ বছর থেকে দারুণ আর্থিক সংকটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। নতুন আপ সরকার শুধু রাজকোষের ওপরে চাপ বাড়িয়েছে, যেটা আরও সংকটের দিকে ঠেলে দিয়েছে পাঞ্জাবকে। তার ওপরে কেন্দ্র জিএস টি ক্ষতিপূরণ একেবারে দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছে, সেটার কারণে আরও চাপের মুখে পাঞ্জাব রাজ্য।।