“পাকিস্তানি” অপবাদ দেওয়ায় দল ছাড়লেন পাঞ্জাবের বিজেপি সাধারণ সম্পাদক মালবিন্দর সিং কাং

4

বিজেপি দলের সঙ্গে মনোমালিন্যের জেরে দল ছাড়লেন পাঞ্জাবে বিজেপি সাধারণ সম্পাদক মালবিন্দর সিং কাং। কেন্দ্রের প্রণীত নতুন কৃষি আইনের বিরোধিতা করায় তাকে “পাকিস্তানি” হিসেবে অপবাদ দেওয়া হয়। দলের তরফ থেকে এহেন অপমান মেনে নিতে পারেননি তিনি। তাই বিজেপি দল ছেড়ে দেওয়ার পথেই এগোচ্ছেন মালবিন্দর সিং কাং। সূত্রের খবর, বিজেপি দল ছেড়ে সম্ভবত শিরোমনি অকালি দলে প্রবেশ করতে চলেছেন তিনি।

নতুন কৃষি আইন ২০২০ নিয়ে দেশজুড়ে বিক্ষোভের মাঝেই এই আইনের বিরোধিতা করে কেন্দ্রের সমালোচনা করেছিলেন মালবিন্দার। তার বক্তব্য অনুসারে, হরিয়ানা এবং পাঞ্জাবের প্রত্যেকটি মানুষ এই নতুন কৃষি আইনের বিরোধিতা করছেন। দলের শীর্ষ নেতৃত্বের কাছে কৃষকদের অসুবিধার কথা আগেই তুলে ধরেছিলেন তিনি। তবে তার কথায় গুরুত্ব দেয়নি কেন্দ্রীয় শাসক দল।

মালবিন্দারের অভিযোগ, বিজেপি দলের কোর কমিটির সদস্য হিসেবে বিল পাশের সময় বিরোধিতা করেছিলেন তিনি। তবে তার কথায় কান দেননি শাসক দলের সমর্থকরা। তিনি আরো বলেছেন, বিলের বিরোধিতা করা নিয়ে শাসকদলের চক্ষুশূল হতে হয়েছে তাকে। কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক তরুণ চুগ প্রকাশ্যেই তাকে “পাকিস্তানি” তকমা দিয়ে বসেন। তার দাবি, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরি চন্ডিগড় এলে তাকেও তিনি কৃষকদের সমস্যার কথা জানান।

তবে তিনিও তার কথার গ্রাহ্য করেননি বলে অভিযোগ করেছেন মালবিন্দার। দলের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে কটাক্ষ করে তিনি বলেছেন, বিজেপির কর্মী-সমর্থকেরা চোখ বন্ধ করে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদির দেখানো পথে চলেন। তাদের নিজস্ব কোনো মতামত নেই। প্রধানমন্ত্রী যা বলেন তাই শিরোধার্য করে নেন তারা। উল্লেখ্য, পাঞ্জাবে বিজেপির যে কজন শিখ নেতা আছেন, তাদের মধ্যে অন্যতম হলেন মালবিন্দার। তাই তার দলত্যাগ স্বাভাবিকভাবেই পাঞ্জাবে বিজেপির ক্ষেত্রে উদ্বেগের বিষয় বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।