টেনসেন্টের থেকে আলাদা হয়ে পুনরায় ভারতে চালু হতে চাইছে পাবজি, অপেক্ষা কেন্দ্রের অনুমতির

12
টেনসেন্টের থেকে আলাদা হয়ে পুনরায় ভারতে চালু হতে চাইছে পাবজি, অপেক্ষা কেন্দ্রের অনুমতির

সম্প্রতি, প্রথম দফায় টিকটক সহ ৫৯ টি চিনা অ্যাপ বাতিল করার পর, দ্বিতীয় দফার ডিজিটাল স্ট্রাইকে জনপ্রিয় গেমিং অ্যাপ পাবজি সহ আরো ১১৮ টি চিনা বিনিয়োগকারী অ্যাপ্লিকেশন বাতিল করে দিয়েছে ভারত সরকার। এরমধ্যে পাবজি গেমিং অ্যাপটি ভারতে বেশ জনপ্রিয় ছিল। ভারতের প্রায় ১৭ কোটি বাসিন্দা পাবজি গেমিং অ্যাপের গ্রাহক ছিলেন। স্বভাবতই, ভারতের ব্যবসায়িক ক্ষেত্র হারিয়ে বেশ বিপাকে গেমিং অ্যাপের মালিক সংস্থা।

ভারতে যাতে পাবজি গেমিং অ্যাপটি পুনরায় চালু করা যায় সেই জন্য এবার নতুন পদক্ষেপ নিতে চলেছে অ্যাপ সংস্থা। শীঘ্রই ভারতে তারা তাদের মূল সংস্থা টেনসেন্টের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করতে চলেছে। এই টেনসেন্ট সংস্থাটি আসলে চিনা সংস্থা। উল্লেখ্য, পূর্ব লাদাখে ভারতীয় সীমান্ত আগ্রাসনের প্রচেষ্টার পাল্টা হিসেবে চীনা পণ্য বয়কটের স্লোগান ওঠে ভারতে। এরপর এই ডিজিটাল স্ট্রাইকের সিদ্ধান্ত নেন মোদি সরকার।

ভারতের তরফ থেকে অবশ্য জানানো হয়, ভারতীয় গ্রাহকদের তথ্য চুরি করে তা বিদেশী সংস্থার কাছে পাঠানোর অপরাধেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত সরকার। এই অ্যাপগুলি ব্যবহার ভারতের পক্ষে বিপজ্জনক, কারণ ভারতীয় ব্যবহারকারীদের তথ্যের নিরাপত্তা রক্ষা সংক্রান্ত কোনো ব্যবস্থা নেই অ্যাপগুলিতে। তবে, ভারত-চীন সীমান্ত বিতর্কের কথা মাথায় রেখে আগে ভাগেই টেনসেন্টের থেকে আলাদা হয়ে যেতে চাইছে পাবজি।

ভারতের বাজার ধরে রাখাই মূল উদ্দেশ্য পাবজি গেমিং সংস্থার। তাই পাবজি সংস্থার তরফ থেকে ঘোষণা করা হয়েছে, আগামী দিনগুলিতে ভারতে গেমিং অ্যাপটি পরিচালনার দায়িত্বে থাকবে স্বয়ং পাবজি কর্পোরেশন। পাশাপাশি, ইউজারদের জন্য স্থানীয় এবং স্বাস্থ্যকর গেম খেলার পরিবেশ বজায় রাখতে বদ্ধপরিকর তারা। ফলে, এবার যদি কেন্দ্রের অনুমতিতে ভারতে পুনরায় পাবজি চালু হয়, সেই আশাতেই রয়েছেন পাবজি গেমের অনুরাগীরা।