পাকিস্তানের হাত থেকে নিষ্কৃতি চেয়ে বিক্ষোভ মিছিল সিন্ধু প্রদেশ বাসিন্দাদের

7
পাকিস্তানের হাত থেকে নিষ্কৃতি চেয়ে বিক্ষোভ মিছিল সিন্ধু প্রদেশ বাসিন্দাদের

পাকিস্তানের হাত থেকে নিষ্কৃতি চান পাকিস্তানের অন্তর্ভুক্ত সিন্ধু প্রদেশের বাসিন্দারা। ১৯৪৭ সালে ভারত ভাগের সময় ওই প্রদেশ পাকিস্তানের অন্তর্ভুক্ত হয়। ওই অঞ্চলে বসবাসকারীদের দাবি, সিন্ধু প্রদেশের সভ্যতা, ঐতিহ্য নষ্ট করার প্রচেষ্টা চালাচ্ছে ইসলামাবাদ। তাই তারা পাকিস্তানের অধীনতা থেকে মুক্তি চান। স্বাধীনতার দাবিতে সম্প্রতি সিন্ধু প্রদেশের কয়েক হাজার বাসিন্দা রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেছেন।

সম্প্রতি এই বিক্ষোভের বেশ কিছু ভিডিও এবং ছবি সোশ্যাল সাইটে ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে বিশ্বের তাবড় তাবড় রাষ্ট্রপ্রধানদের ছবি নিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করছেন সিন্ধু প্রদেশের বাসিন্দারা। পাকিস্তানের হাত থেকে রক্ষা পেতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ বিশ্বের বহু রাষ্ট্রপ্রধানের কাছে সাহায্য চেয়েছেন তারা।

একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের রিপোর্ট থেকে জানা গেল, রবিবার পাকিস্তানের সিন্ধুপ্রদেশের সান এলাকায় স্বাধীনতার দাবিতে মিছিল বের করেন সিন্ধু প্রদেশের বাসিন্দারা। তাদের দাবি, সিন্ধু প্রদেশেই প্রাচীন সিন্ধু সভ্যতার উন্মেষ ঘটে। বৈদিক ধর্মের উন্মেষ ঘটেছিল। প্রথমে ব্রিটিশ সরকার অবৈধভাবে এই সিন্ধু প্রদেশ দখল করে নেয়, সভ্যতার উপর রীতিমতো ধ্বংসলীলা চালায়। ইসলামাবাদও সেই একই কাজ করছে।

সিন্ধু প্রদেশের বাসিন্দাদের স্বাধীনতার দাবি সংক্রান্ত বিক্ষোভের অন্যতম নেতা তথা জে সিন্ধ মুত্তাহিদা মাহাজের চেয়ারম্যান শাফি মুহম্মদ বুরফাত জানিয়েছেন, সেই ব্রিটিশ আমল থেকেই সিন্ধু সভ্যতা, ঐতিহ্য নষ্ট করে দেওয়ার প্রয়াস চলছে। তবে সিন্ধুর বাসিন্দারা বরাবর নিজেদের সভ্যতাকে রক্ষা করে এসেছেন। কারণ অন্যের ধর্ম এবং সংস্কৃতিকে আপন করতে গিয়ে নিজ ধর্ম বিসর্জনের শিক্ষা দেয়না সিন্ধু সভ্যতা। বর্তমানে সেই সভ্যতাকে নষ্ট করার চেষ্টা চালাচ্ছে পাকিস্তান। তাই তারা পাকিস্তানের অধীনতা থেকে মুক্তি চান।