বিহার বিধানসভা নির্বাচনে ভোট প্রচারে নাম্লেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

4
বিহার বিধানসভা নির্বাচনে ভোট প্রচারে নাম্লেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

বিহার বিধানসভা নির্বাচন উপলক্ষে ভোট প্রচারে নেমেছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বুধবার, বিহারের বিস্তীর্ণ অঞ্চলজুড়ে যখন বিধানসভা নির্বাচনের প্রক্রিয়া চলছে, প্রধানমন্ত্রী তখন দ্বারভাঙ্গায় একটি জন সমাবেশের আয়োজন করে বিহার বাসীকে বিজেপি তথা এনডিএ সরকারের এজেন্ডা সম্পর্কে বক্তৃতা দিলেন। ভোট প্রচারে নেমে তিনি অযোধ্যা রাম মন্দির নির্মাণে বিজেপির সফলতার প্রসঙ্গও জনসমক্ষে তুলে ধরলেন।

সমালোচকদের অবশ্য দাবি, বিহারের স্থানীয় সমস্যাগুলির প্রতি একটিও বাক্য ব্যয় না করে নিজেদের চিরাচরিত হিন্দুত্ববাদী নীতি সম্পর্কেই কেন্দ্রীয় শাসকদলের গুনগান গেয়েছেন মোদি। বিহারের দ্বিতীয় দফার ভোটের প্রচার করতে গিয়ে অযোধ্যা রাম মন্দির ইস্যু তুলে ধরলেন প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রীর দাবি অনুযায়ী, বিজেপি যা প্রতিশ্রুতি দেয়, তা সর্বতোভাবে রক্ষাও করে। অযোধ্যার রাম মন্দির তার প্রত্যক্ষ প্রমান।

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য অনুসারে, বহু বছর অপেক্ষার পরে এন ডি এ সরকারের আমলে অবশেষে অযোধ্যায় রাম মন্দির গড়ে উঠছে। সীতা মাতার জন্ম ভূমিতে দাঁড়িয়ে তিনি সেই অঞ্চলের মানুষদের রাম মন্দির নির্মাণের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। পাশাপাশি, বিরোধীদেরও একহাত নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তার মন্তব্য, যেসব রাজনৈতিক নেতা-কর্মী একসময়ে অযোধ্যা মন্দির নির্মাণের তারিখ জানতে চাইতেন, তারা আজ বিজেপির সাফল্যে হাততালি দিতে বাধ্য হয়েছেন।

উল্লেখ্য, এর আগেও অবশ্য বিহারে নির্বাচনী প্রচারে অংশগ্রহণ করে স্থানীয় ইস্যু গুলির তুলনায় এধরনের জাতীয় ইস্যুর উপর ভিত্তি করেই প্রচার চালিয়ে ছিলেন প্রধানমন্ত্রী। কখনো কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপ, তো কখনো রাম মন্দির ইস্যু নিয়েই ভোট প্রচার চালাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী। পাশাপাশি, বিহার বাসীকে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী লালু প্রসাদ যাদবের ১৫ বছরের রাজত্বকালের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, বিহারের বাসিন্দারা নিজ রাজ্যে আর নতুন করে জঙ্গল রাজ চালাতে দেবেন না।