প্লাজমা থেরাপিতে সুস্থতার পথে ৪ মরণাপন্ন রোগী

62
প্লাজমা থেরাপিতে সুস্থতার পথে ৪ মরণাপন্ন রোগী

দেশ জুড়ে ক্রমশ বেড়েই চলেছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। প্রায় সমস্ত চিকিৎসক থেকে শুরু করে চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা দিন-রাত এক করে গবেষণার কাজে নিজেদের সঁপে দিলেও এখনও পর্যন্ত করোনার কোনো প্রতিষেধক আবিষ্কার করা যায়নি। ইতিমধ্যেই জানা গিয়েছে, ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৯ হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে। যার ফলে যথেষ্ট চিন্তিত রয়েছৈ কেন্দ্র সরকার এবং ইতিমধ্যেই দেশ জুড়ে লকডাউন এর সময়সীমাও বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, এই পরিস্থিতিতে আতঙ্কের পাশাপাশি যথেষ্ট আশার খবরও দিলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল।তিনি জানালেন,ইতিমধ্যেই দিল্লীতে চারজন করোনা আক্রান্ত রোগীর ক্ষেত্রে প্লাজমা থেরাপি প্রয়োগ করা হয়েছিল এবং এতে প্রত্যেকের ক্ষেত্রেই অত্যন্ত আশানুরূপ ফল পাওয়া গিয়েছে। তবে এক্ষেত্রে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী আগেই জানিয়েছিলেন করোনা দ্বারা আক্রান্ত সংকটজনক রোগীদের ক্ষেত্রে ‘ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল’-এর ভিত্তিতে প্লাজমা থেরাপি শুরু হতে চলেছে।

এরপর ঠিক তার চার দিনের মাথাতেই এসেছিল প্রথম সাফল্যের খবর। এদিন পুনরায় সাংবাদিক বৈঠকে তিনি বলেন, ‘প্লাজমা থেরাপির এই ইতিবাচক ফল এই চার জন রোগীর ক্ষেত্রেই আশা দেখাচ্ছে।প্রসঙ্গত ওই চার জন রোগীর বর্তমানেএ চিকিৎসা চলছে দিল্লির লোকনায়ক জয়প্রকাশ নারায়ন হাসপাতালে।এই বিষয়ে কেজরিওয়াল সতর্ক করে জানিয়ে দিয়েছেন
, “এটি শুধুমাত্র একটি প্রাথমিক সাফল্য। এটা ভাবার এখনও এরম সময় বা পরিস্থিতি তৈরী হয়নি যে আমরা এই প্রাথমিক চিকিৎসা তো করোনা কে রুখে দিয়েছি। শুধু এটুকু বলা যেতে পারে যে এক টুকরো আশার আলো আমরা দেখতে পেয়েছি।”