দীর্ঘ ৪০ বছরেরও বেশি সময় ধরে রাষ্ট্রপতি ভবনের গোপন সুড়ঙ্গে বাস পিতাপুত্রে’র

236
দীর্ঘ ৪০ বছরেরও বেশি সময় ধরে রাষ্ট্রপতি ভবনের গোপন সুড়ঙ্গে বাস পিতাপুত্রে'র

রাষ্ট্রপতি ভবনের গোপন সুড়ঙ্গে এতদিন সকলের অলক্ষ্যে বাস করছিলেন পিতাপুত্র! একদিন দুদিন অথবা এক বছর দু বছরের জন্য নয়, ওই দুই ব্যক্তি ৪০ বছরেরও বেশি সময় ধরে ওই সুড়ঙ্গে বসবাস করছেন বলে জানা গিয়েছে। তবে এতদিন তাদের উপস্থিতি কেউ টের পায়নি। নয়াদিল্লিতে খোদ রাষ্ট্রপতি ভবনে এমন ঘটনা ঘটাতে স্বভাবতই চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনাটি প্রথম নজরে আসে শনিবার রাতে, রাষ্ট্রপতি ভবনের বাইরে টহলরত এক পুলিশ ভ্যানের পুলিশকর্মীই প্রথম এক ব্যক্তিকে রাষ্ট্রপতি ভবনের পাঁচিল টপকে যাতায়াত করতে দেখেন।

প্রথমে ওই ব্যক্তিকে সন্ত্রাসবাদি বলে ভ্রম হয়েছিল তার। তবে শীঘ্রই তাদের সেই ভুল ভাঙ্গে। জানা যায় তিনি আসলে রাষ্ট্রপতি ভবনেরই বাসিন্দা। তবে এতদিন বিনা অনুমতিতেই রাষ্ট্রপতি ভবনে বসবাস করছিলেন তিনি। সেই সঙ্গে এতদিন বসবাস করতেন গাজি নুরুল ইসলাম এবং তার ছেলে মোহাম্মদ নুর। সেই সুড়ঙ্গ সংলগ্ন একটি মাজার রয়েছে। মাজারের প্রণামী বাক্সে এতদিন যে প্রণামী পড়েছে, তাতেই কার্যত তাদের দিন চলেছে।

এদিনের এই ঘটনায় ওই দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ। তবে পুলিশ অবশ্য জানাচ্ছে যে রাষ্ট্রপতি ভবনের বাইরে যে এরকম একটি মাজার রয়েছে, সে কথাটাই তাদের জানা ছিল না। তাই এতদিন লোকচক্ষুর আড়ালে রাষ্ট্রপতি ভবনের মধ্যে বসবাস করছিলেন ওই দুই ব্যক্তি। রাষ্ট্রপতি ভবনের পেছনের রাস্তা সংলগ্ন পাঁচিল টপকেই এতদিন তাদের যাতায়াত চলেছে। তবে প্রাথমিকভাবে জেরা করার পরে অবশ্য ওই দুই ব্যক্তিকে ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ।