কমতে পারে পেট্রোল-ডিজেলের দাম

5
কমতে পারে পেট্রোল-ডিজেলের দাম

করোনার পরবর্তী সময়ে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম যে হারে বাড়ছে তাতে সাধারণ মানুষের রীতিমতো নাভিশ্বাস উঠছে। রান্নার গ্যাসের দাম এবং পেট্রোল-ডিজেলের ক্রমবর্ধমান দাম বাড়তে বাড়তে এমন জায়গায় পৌঁছেছে যে সরকারের প্রতি সাধারণের ক্ষোভ ক্রমশ বাড়ছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে দেশজুড়ে পেট্রোল-ডিজেল এবং রান্নার গ্যাসের দাম কমানোর দাবি উঠছে।

পেট্রোল-ডিজেলের দামে নিয়ন্ত্রণ আনার জন্য এবার জ্বালানি তেলের দামকে জিএসটির আওতায় আনার চিন্তাভাবনা চালাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার। কারণ বর্তমান পরিস্থিতিতে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে পেট্রোল-ডিজেলের দাম ১০০ টাকা ছাড়িয়েছে। এমতাবস্থায় পেট্রোল-ডিজেলকে যদি ভারতের সর্বোচ্চ ২৮ শতাংশ জিএসটির আওতায় আনা হয় তাহলেও দাম অনেকখানি কমবে বলেই আশা রাখছে কেন্দ্র।

কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন লোকসভায় এরকমই একটি প্রস্তাব রেখেছেন। তার বক্তব্য থেকে স্পষ্ট, শীঘ্রই জিএসটি কাউন্সিলের বৈঠকে এই বিষয়টি উত্থাপিত হবে। অর্থমন্ত্রী জানিয়েছেন, দেশের যে সকল রাজ্যগুলিতে পেট্রোল ডিজেলের উপর উচ্চ কর বসানো হয়, সেই রাজ্যগুলি যদি কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের সঙ্গে সহমত পোষণ করে তাহলেই এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করা সম্ভব হবে।

প্রসঙ্গত এই মুহূর্তে মহারাষ্ট্রে পেট্রোল এবং ডিজেলের উপরে নির্ধারিত করের মাত্রা সর্বোচ্চ। এই মুহূর্তে পেট্রোল এবং ডিজেলের দাম যদি জিএসটির আওতায় আনা হয় তাহলে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের সম্মিলিত রাজকোষে অন্তত এক লক্ষ কোটি টাকা বাড়তি খরচ হবে। পেট্রোল-ডিজেলের দামে নিয়ন্ত্রণ আনতে সচেষ্ট হলেও এখনই রান্নার গ্যাসের দাম কমানো নিয়ে কোনো পরিকল্পনা নিচ্ছে না কেন্দ্র।