ভাড়া বৃদ্ধির দাবিতে সরব বেসরকারি বাস সংস্থার মালিকেরা! করলেন কোভিড স্পেশ্যাল ফেয়ার চালু করার আর্জি

8
ভাড়া বৃদ্ধির দাবিতে সরব বেসরকারি বাস সংস্থার মালিকেরা! করলেন কোভিড স্পেশ্যাল ফেয়ার চালু করার আর্জি

নতুন করোনা সতর্কতা বিধি চালু হলে রাজ্যে বেসরকারি বাস চালু করার পক্ষে অনুমোদন দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে সেক্ষেত্রেও অবশ্য বেসরকারি বাস সংস্থার মালিকেরা ভাড়া বৃদ্ধির দাবিতে সরব হয়েছেন। কারণ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৫০ শতাংশ যাত্রী নিয়ে বাস চলাচলের পক্ষে অনুমোদন দিয়েছেন। এত কম যাত্রী নিয়ে আগের ভারতে বাস চলাচল করলে বাস মালিকদের ক্ষতির সম্ভাবনাই প্রবল।

তাই তারা এখন কোভিড স্পেশ্যাল ফেয়ার চালু করার পক্ষে সওয়াল করছেন। বেসরকারি বাস সংস্থার মালিকদের দাবি, কোভিড স্পেশ্যাল ফেয়ার চালু না করলে রাস্তায় গাড়ি নামানো যাবে না। সে ক্ষেত্রে ন্যূনতম ভাড়া হবে ১০ টাকা। সর্বোচ্চ কুড়ি টাকা। গতবার লকডাউন শেষে বাস পরিষেবা চালুর সময়েও এই নিয়ম চালু হয়েছিল। তবে তাতে অবশ্য বেসরকারি সংস্থার কন্ডাক্টরের যাত্রীদের থেকে যেমন খুশি ভাড়া নিয়েছিলেন।

এতে নিত্যযাত্রীরা প্রবল অসুবিধার সম্মুখীন হয়েছিলেন। কন্ডাক্টদের সঙ্গে এই নিয়ে যাত্রীদের বচসাও বাঁধে। সেই একই আশঙ্কা আবার যাত্রীদের মনে দানা বেঁধেছে। তারা আশঙ্কা করছেন গত বারের মতো এবারেও কন্ডাক্টরেরা নিজেদের ইচ্ছেমতো ভাড়া নেবে। প্রসঙ্গত আগামী পয়লা জুলাই থেকে অবশ্য বেসরকারি বাসের পাশাপাশি সরকারি বাস চলাচল করতে শুরু করবে। কোন রুটে কত বাস নামবে এবং জেলার মানুষকে শহরে কর্মস্থলে আনতে শহরতলি এবং জেলা থেকে নতুন রুট চালু হবে কিনা সে সম্পর্কিত চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আজ গ্রহণ করা হবে।

বেসরকারি বাস মালিকদের দাবি, পেট্রোল-ডিজেলের দাম ৯০ টাকা লিটার চড়েছে। এমনিতেই বাস চালালে লাভের তুলনায় লোকসান বেশি হচ্ছে। এখন যদি আবার পুরনো ভাড়াতেই ৫০ শতাংশ যাত্রী নিয়ে বাস চলাচল শুরু হয় সেক্ষেত্রে লোকসান বই লাভ কিছুই হবে না। তাই সংগঠনের তরফে কোনও বাস মালিককে বাস নামানোর কথা বলা হচ্ছে না। তবে কেউ যদি স্বেচ্ছায় বাস চালানোর কথা ভাবেন সে ক্ষেত্রে বাধা দেওয়া হবে না বলে জানানো হয়েছে।