এবার উপরাষ্ট্রপতির মন্তব্য ঘিরে বিজেপির বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িকতার উস্কানি পেল বিরোধীরা

5
এবার উপরাষ্ট্রপতির মন্তব্য ঘিরে বিজেপির বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িকতার উস্কানি পেল বিরোধীরা

বিজেপি নেতৃত্বদের বিরুদ্ধে বহুবার “ইসলাম ধর্মের প্রতি বিরূপতা”র অভিযোগ উঠেছে। বিজেপি সরকারের গায়ে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের স্বার্থ বিরোধির তকমা লেগেছে বহু আগেই। বিশেষত সংখ্যালঘুদের প্রতি বিজেপির নেতা কর্মীদের বিরূপ মন্তব্যের জেরেই এমনটা হয়েছে। এবার খোদ উপরাষ্ট্রপতির মন্তব্য ঘিরে আবারও বিজেপির বিরুদ্ধে সংখ্যালঘু সম্প্রদায় বিরোধীতার অভিযোগ উস্কানি পেল।

শনিবার একটি ভার্চুয়াল সমাবেশে অংশগ্রহণ করে উপরাষ্ট্র মন্ত্রী মন্তব্য করেন, সন্ত্রাসবাদীদের কোনো ধর্ম হয় না। কোনো ধর্ম কখনোই সন্ত্রাসবাদের প্রচার চালাতে পারেনা। উপরাষ্ট্র মন্ত্রী আরও বলেছেন, কিছু মানুষ সন্ত্রাসবাদের সঙ্গে ধর্মকে গুলিয়ে ফেলেন। ধর্মের সঙ্গে কখনো সন্ত্রাসের যোগ থাকতে পারে না। উপরাষ্ট্রপতি এই মন্তব্যকে ঘিরেই জল্পনার উদ্রেক হয়েছে। এই বক্তব্যের মাধ্যমে তিনি একটি নির্দিষ্ট ধর্ম সম্প্রদায়ের মানুষদের নিশানা করেছেন বলে দাবি করছেন বিরোধীরা।

তবে এদিনের আন্তর্জাতিক সমাবেশে অংশগ্রহণ করে উপরাষ্ট্রপতি ভেঙ্কাইয়া নাইডু সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে কড়া অবস্থান নেওয়ার হুঁশিয়ারি করেছেন। তার বক্তব্য অনুসারে, আজ পৃথিবীর কোনো দেশই সন্ত্রাসবাদের প্রভাব থেকে মুক্ত নয়। বিশ্বের প্রতিটি দেশকে একজোট হয়ে সন্ত্রাসবাদের মোকাবিলা করার আহ্বান জানিয়েছেন ভারতীয় উপরাষ্ট্রপতি। তিনি বলেছেন, সন্ত্রাসবাদ এর সঙ্গে জড়িতদের শুধুমাত্র বিচ্ছিন্ন করে রাখলেই চলবে না, তাদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থাও করতে হবে।

আন্তর্জাতিক মঞ্চে দাঁড়িয়ে উপরাষ্ট্রপতির এহেন বক্তব্যে স্বভাবতই রাজনৈতিক মহলে জোর জল্পনার সূত্রপাত হয়েছে। সমর্থকদের দাবি, রাজনীতির ঊর্ধ্বে উঠে সাংবিধানিক পদের মর্যাদা রেখেছেন উপরাষ্ট্রপতি। আবার বিরোধীদের দাবি, এ পেছনে কোনো গূঢ় অর্থ রয়েছে। উপরাষ্ট্রপতির বক্তব্যে অনেকেই ইসলাম ধর্ম বিরোধীতার গন্ধ পাচ্ছেন।