নির্দেশিকা জারি না হওয়ায় করোনার টিকা নিতে অনিচ্ছুক এক শিক্ষক এবং তার স্ত্রী

4
নির্দেশিকা জারি না হওয়ায় করোনার টিকা নিতে অনিচ্ছুক এক শিক্ষক এবং তার স্ত্রী

বর্তমান পরিস্থিতিতে করোনার টিকা নেওয়াটা জরুরী। তবে এই নিয়ে কোনো নির্দেশিকা প্রশাসনের তরফ থেকে জারি করা হয়নি। সেই ফাঁক গলে কোচবিহারের মহিশকুচি গ্রামের একজন শিক্ষক এবং তার স্ত্রী টিকা নিতে বেঁকে বসেছেন। তাদের দাবি, তারা টিকা নেবেন না। যতক্ষণ না পর্যন্ত এই সংক্রান্ত কোনো নির্দেশিকা আসছে, তারা টিকা নিতে বাধ্য নন।

ওই শিক্ষকের এমন হঠকারী সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করছেন গ্রামবাসীরা। গ্রামের সকলেই যেখানে টিকা নিয়ে নিয়েছেন সেখানে ওই শিক্ষক এবং তার স্ত্রীর এমন মানসিকতায় তারা আতঙ্কিত। স্বাস্থ্যকর্মীরা বারবার তাদের বাড়িতে গিয়ে টিকা নেওয়ার জন্য তাগাদা দিয়ে এসেছেন। তবুও তারা তাদের সিদ্ধান্তে অনড়।

গ্রামবাসীরা জানাচ্ছেন স্বাস্থ্যকর্মীরা অন্ততপক্ষে 11 বার ওই শিক্ষকের বাড়িতে গিয়ে টিকা নেওয়ার জন্য অনুরোধ করেছিলেন। তবে ঐ শিক্ষক এবং তার স্ত্রীর দাবি, করোনা টিকা নেওয়ার কোনো নির্দেশিকা জারি করা হয়নি। তাই তারা টিকা নিতে বাধ্য নয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে সিদ্ধান্ত নিলেন গ্রামবাসীরা। তারা ঐ শিক্ষকের বাড়িতে বাইরে থেকে তালা ঝুলিয়ে দিলেন।

বক্সিরহাট বাঁশরাজা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকের সঙ্গে এই নিয়ে গ্রামবাসীদের বচসা হয়েছিল। তাকে কোনোভাবেই বোঝাতে না পেরে গ্রামবাসীরা তার বাড়ির দরজায় তালা ঝুলিয়ে দেয়। তবুও শিক্ষকের সিদ্ধান্ত বদল হয়নি। সংবাদমাধ্যমের কাছে এই নিয়ে কথা বলতে গিয়ে তিনি প্রশ্ন তোলেন টিকা যে নিতেই হবে এমন লিখিত নির্দেশ কোথায় দেওয়া আছে!