ভারতীয় যৌথ সেনাবাহিনীর অভিযানে খতম হল এক জঙ্গি কমান্ডার

11
ভারতীয় যৌথ সেনাবাহিনীর অভিযানে খতম হল এক জঙ্গি কমান্ডার

ফের জম্বু কাশ্মীরের সন্ত্রাস দমন অভিযানে নেমে বড় সাফল্য লাভ করলো ভারতীয় যৌথ সেনাবাহিনী। পাক মদতপুষ্ট জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদের কমান্ডার সাজ্জাদ আফগানিকে খতম করতে সমর্থ হয়েছেন শোপিয়ান জেলায় সেনা, আধা সামরিক বাহিনী ও পুলিশের যৌথবাহিনীর সদস্যরা। বিগত প্রায় তিন দিন ধরেই জম্মু-কাশ্মীরের সোপিয়ানে জইশ জঙ্গিদের সঙ্গে নিরাপত্তারক্ষী বাহিনীর সংঘাত বাঁধে।

গত শনিবারই ভারতীয় নিরাপত্তা রক্ষী বাহিনীর সদস্যরা জঙ্গিদের ডেরা ঘিরে ফেলেছিলেন। পরপর তিন দিনের সংঘর্ষের পর সোমবার সকালেই যৌথবাহিনীর হাতে খতম হয়েছে জইশ-ই-মহম্মদের কমান্ডার। পাক মদতপুষ্ট জঙ্গি সংগঠনের কমান্ডারের মৃত্যুতে স্বভাবতই জঙ্গী সংগঠনটি জোর ধাক্কা খেয়েছে বলেই মনে করছেন কূটনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। সোপিয়ান জেলাতে জইশ সদস্যদের নেতৃত্ব দিত এই সাজ্জাদ।

ভারতীয় নিরাপত্তা রক্ষী বাহিনী সূত্রে খবর, উপত্যাকা অঞ্চলের যুবকদের মগজধোলাই করে তাদের জঙ্গি সংগঠনের অন্তর্ভুক্ত করার দায়িত্ব ছিল সাজ্জাদের উপর। তার গোপন ডেরার তথ্য পেয়েই গত শনিবার তার ডেরা ঘিরে ফেলে পুলিশ। শনিবার থেকেই পুলিশ এবং জঙ্গী সংগঠনের সদস্যদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ বাঁধে। শেষমেষ সোমবারের গুলি লড়াইয়ে সাজ্জাদকে খতম করা সম্ভব হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ১০ই মার্চ জম্মু ও কাশ্মীরেই কুখ্যাত “আল বদর” জঙ্গী সংগঠনের প্রধান গানি খোয়াজাকে খতম করে ভারতীয় নিরাপত্তা রক্ষী বাহিনীর সদস্যরা। গানি খোয়াজার মৃত্যুতে কাশ্মীরে আলবদর জঙ্গি সংগঠনটি বেশ দুর্বল হয়ে পড়েছে এবং উপত্যকা অঞ্চলে তাদের “কাশ্মীরের কণ্ঠ” হয়ে ওঠার পরিকল্পনাও ব্যর্থ হয়েছে। এরপর জইশ জঙ্গী প্রধানের মৃত্যুতে আরো বড় সাফল্য লাভ করলেন ভারতীয় সেনাবাহিনীর সদস্যরা।