জীবনে চলার পথে এই চারটি কথা কখনো কাউকে বলতে নেইঃ চানক্য

50
জীবনে চলার পথে এই চারটি কথা কখনো কাউকে বলতে নেইঃ চানক্য

জ্ঞানী চাণক্য যেমন খুব বড় মাপের অর্থনীতিবীদ ছিলেন আবার অন্যদিকে একজন খুব ভালো শিক্ষক এবং দার্শনিক ছিলেন। এছাড়াও ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা তার নাম রাজনীতির দিক থেকেও। অর্থনীতিবিদ চানক্য অনেক রাজাদের পরামর্শ দিতেন রাজকার্যের নানা বিষয়ে। গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো রাজারাও তাকে চোখ বন্ধ করে তার পরামর্শ মেনে নিতেন। অর্থনীতিবীদ চাণক্যের প্রতিটি কথাই সবার কাছে বেদবাক্যের মত ছিল। জ্ঞানী চাণক্যের মতে যে চারটি কথা কখনোই কাউকে বলা উচিত নয় সেই কথাগুলি হল-

প্রথম কথাটি হলো নিজের ব্যক্তিগত কোনো সমস্যার কথা কখনও কাউকেই বলা উচিত নয়। কারণ ব্যাক্তিগত সমস্যার কথা বললে মানুষ তাকে নিয়ে শুধুমাত্র তামসাই করবে। তার সমস্যার কথা কেউ ভাববেনা এবং বুঝবেনা বরং তাকে ভেবে বসবে সে দুর্বল। দ্বিতীয় কথাটি হলো কাউকে নিজের অর্থের সমস্যার কথা বলা উচিত নয়। যদি কেউ নিজের অর্থের সমস্যা বলে থাকে তার থেকে বড় বোকা এই পৃথিবীতে আর কেউ নেই, সেই কথাই বলেছিলেন জ্ঞানী চাণক্য। কারণ গরিবদের কখনোই সমাজ সম্মান দেয়না। তাই আপনার টাকা কম থাকলেও বা অর্থ সমস্যা থাকলেও সেই কথা কখনোই কাউকে বলা উচিত নয়।

তৃতীয় কথাটি হলো চালক্য বলেছিলেন যারা বুদ্ধিমান তারা কখনোই নিজের স্ত্রী চরিত্র নিয়ে কারো সাথে কথা বলেননা। অর্থাৎ নিজের স্ত্রীর চরিত্র ও অন্যান্য বিষয় গোপন করে রাখে। এই বিষয়টিকে খুব গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেছেন জ্ঞানী চাণক্য। এই বিষয়টি একটি নীতিকথার মধ্যেই পড়ে।‌ অর্থাৎ যে স্বামী তার স্ত্রীকে সম্মান করেন, এই পুরুষই সমাজে প্রকৃত পুরুষ বলে বিবেচিত হয়। শেষ কথাটি হলো কখনো যদি কেউ অবহেলিত ব্যক্তি আপনাকে অপমান করে সেই কথা সব সময় গোপন রাখা উচিত। যদি আপনি এই কথা কাউকে বলে দেন তাহলে সে আপনাকে নিয়ে ঠাট্টা তামাশা করবে এবং আপনার অহংকারের ও গর্ভবোধে দাগ লাগবে।