একই রাতে পরপর চারটি পুরাতন মন্দিরে লুটপাট চালালো দুষ্কৃতীরা, ঘটনায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী

11
একই রাতে পরপর চারটি পুরাতন মন্দিরে লুটপাট চালালো দুষ্কৃতীরা, ঘটনায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী

পূর্ব বর্ধমানের মন্তেশ্বরে বহুবর্ষ পুরাতন পরপর চারটি মন্দিরে লুটপাট চালালো দুষ্কৃতীরা। সূত্রের খবর, মাঝরাতে ওই এলাকার চারটি মন্দিরের যাবতীয় পুরাতন মূর্তি, গয়না, বাসনপত্র নিয়ে চম্পট দিয়েছে দুষ্কৃতীরা। রাতের অন্ধকারে মন্দিরের দরজার তালা ভেঙে তিনশো বছরের প্রাচীন কষ্টিপাথরের সূর্য মূর্তি, বিগ্রহের গয়না, প্রণামী বাক্সের টাকা, বাসন পত্র সহ যাবতীয় জিনিস নিয়ে পালিয়ে গিয়েছে চোর।

পুলিশ সূত্রে খবর, মন্তেশ্বরের গলাতুন অঞ্চলের গোস্বামী পাড়ার গোপাল মন্দির, চক্রবর্তী পাড়ার নারায়ন মন্দির, একটি বারোয়ারি দুর্গা মন্দির ও রায়পাড়ার রঘুনাথ মন্দিরে এমন ঘটনা ঘটেছে। ঘটনা ঘিরে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। স্থানীয়রা জানাচ্ছেন, কিছুদিন আগেও ওই এলাকার বেশ কয়েকটি মন্দিরে চুরি হয়েছিল। কয়েকদিনের ব্যবধানেই পরপর এমন ঘটনা ঘটাতে স্বভাবতই স্থানীয় বাসিন্দারা বেশ ক্ষুব্ধ।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, রাস পূর্ণিমা উপলক্ষে রবিবার রাতে মন্দির প্রাঙ্গণে এক বিশেষ পূজার আয়োজন করা হয়েছিল। পুজোর পর মন্দিরে তালা লাগিয়ে পুরোহিত চলে যান। এরপর মাঝ রাতেই দুষ্কৃতীরা মন্দিরে আক্রমণ চালায় বলে অনুমান করা হচ্ছে। সকালে মন্দিরে তালা ভাঙ্গা অবস্থাই দেখতে পান এলাকার বাসিন্দারা। গোস্বামী পাড়ার গোপাল মন্দির থেকে বিগ্রহের বাঁশি, সোনার বালা, নূপুর সহ আড়াই লক্ষ টাকার গয়না উধাও হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

শুধু তাই নয়, ওই মন্দিরের তিনশো বছরের প্রাচীন কষ্টিপাথরের সূর্য মূর্তিটিরও খোঁজ মিলছে না। পুলিশ সূত্রে খবর, ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে। দুষ্কৃতীদের খোঁজে এলাকায় খানাতল্লাশি চলছে। পাশাপাশি রাতে ওই গ্রামীণ এলাকায় নজরদারি আরো বাড়ানো হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।