পাবজি খেলায় বাধা! মাঝরাতে মাকে খুন করে বসলো গুণধর ছেলে

7
পাবজি খেলায় বাধা! মাঝরাতে মাকে খুন করে বসলো গুণধর ছেলে

পাবজি খেলায় বাধা দিয়েছে মা, তার ফলেই মায়ের এই পরিণতি। যা বাস্তবে কখনো কল্পনাই করা যায় না। মা খেলতে দেয়নি পাবজি, গুণধর ছেলে প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য মাঝরাতে খুন করে বসলো মাকে। কিন্তু ঘটনা জানাজানি হলে তো কেলেঙ্কারি হয়ে যাবে, তাই শেষ পর্যন্ত টানা তিন দিন ঘরের মধ্যে লুকিয়ে রাখলো মায়ের দেহ, ঘটনাটি ঘটেছে লখনউয়ের পঞ্চমখেদা যমুনাপুরম কলোনিতে।

ইতিমধ্যেই সেই এলাকায় দারুন চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে, পুলিশে খবর দেয়া হলে সেই ছেলেটিকে গ্রেফতার করা হয়েছে ইতিমধ্যেই। মা ছেলের ভালোর জন্য , গেম খেলতে বাধা দিয়েছিল। বর্তমান সময়ে গেমের প্রতি আসক্তি নিয়ে মায়ের ভয় ছিল, সেই ভয় থেকেই ছেলেকে বাধা দিয়েছিল মা। কিন্তু তার যে এই পরিণতি ঘটবে সে হয়তো স্বপ্নেও কল্পনা করেনি। অনেকবার মা তাকে খেলতে বারণ করলেও সেই কথা কানে তোলেনি ছেলে। ছেলের মনের মধ্যে যে কি ধরনের প্রতিক্রিয়া কাজ করছিল তা হয়তো মা বুঝতে পারেনি, যার কারণে শেষ পর্যন্ত প্রাণ খোয়াতে হলো মাকে।

যে ছেলে এই কাণ্ড ঘটিয়েছে তার বয়স মাত্র ১৬ বছর। আসলে সে একজন কিশোর, পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে ঘটনাটি ঘটেছে গত শনিবার। মায়ের এই পরিস্থিতি যাতে প্রতিবেশীরা ও অন্যান্যরা জানতে না পারে, সেই কারণেই ছেলে ৩ দিন মায়ের মরদেহ লুকিয়ে রেখেছিল। সেই খবর যাতে কেউ জানতে না পারে তার জন্য বোনকে পর্যন্ত শাসিয়ে ছিল সেই কিশোর, কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। যখন পচা গন্ধ বের হচ্ছিল তখনই প্রতিবেশীরা সন্দেহ করে ও পুলিশকে সমস্ত কিছু জানায়।

পুলিশ এসে তল্লাশি চালিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে ঘর থেকে। মৃতার মেয়ের কাছ থেকে পুলিশ জানতে পারে, গন্ধ যাতে বেশি না ছড়ায় তার জন্য সুগন্ধি ছড়াত তার ভাই। জানা যায় দুই সন্তানকে নিয়ে মা ঘুমোচ্ছিল রাতে, কিন্তু মাঝ রাতেই তার গুণধর ছেলে উঠে ঘরে থাকা লাইসেন্সপ্রাপ্ত পিস্তল নিয়ে মায়ের মাথায় গুলি করে। সেখানেই মায়ের মৃত্যু হয়।