বিশ্বের সবথেকে শক্তিশালী মিসাইল উৎক্ষেপণের প্রদর্শনী করল উত্তর কোরিয়া

16
বিশ্বের সবথেকে শক্তিশালী মিসাইল উৎক্ষেপণের প্রদর্শনী করল উত্তর কোরিয়া

নতুন বছরের শুরুতেই শক্তি প্রদর্শনের খেলায় মেতেছে উত্তর কোরিয়া। বৃহস্পতিবার রাতে একটি সাবমেরিন লঞ্চড ব্যালিস্টিক মিসাইলের সফল উৎক্ষেপণ করেছে এই স্বৈরাচারী রাষ্ট্রটি। ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের সময় উপস্থিত ছিলেন স্বয়ং রাষ্ট্রপ্রধান কিম জং উন। উত্তর কোরিয়ার রাজধানী পিয়ংইয়ং-এর সান স্কোয়ারে এদিন ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। শক্তিশালী ক্ষেপণাস্ত্র ছাড়াও অন্যান্য সামরিক অস্ত্রের প্রদর্শনও এদিন করা হয়েছে।

উত্তর কোরিয়ার সরকারি সংবাদ সংস্থা কেসিএনএ-র প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, সাবমেরিন লঞ্চড ব্যালিস্টিক মিসাইলটিই আসলে বিশ্বের সবথেকে শক্তিশালী মিসাইল। সমুদ্রে উত্তর কোরিয়ার আধিপত্য আরও দৃঢ় করবে এই মিসাইল। এই অত্যাধুনিক এবং শক্তিশালী মিসাইলের পরীক্ষণ এবং উন্নয়নের দিকে নজর দিয়েছেন উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রপ্রধান। তার তত্ত্বাবধানেই এদিনের প্রদর্শন সম্পন্ন হয়েছে।

চামড়ার কোট এবং টুপি পরে উক্ত প্রদর্শন কেন্দ্রে উপস্থিত হয়েছিলেন কিম জং উন। প্রদর্শনীতে উপস্থিত জনতার প্রতি হাত নাড়াতে দেখা গিয়েছে তাকে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এক বছর আগেও একের পর এক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করেছিল উত্তর কোরিয়া। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার টানাপোড়েন কূটনৈতিক মহলের অবিদিত নয়। এমতাবস্থায় উত্তর কোরিয়ার বারংবার নিজের শক্তি প্রদর্শন স্বভাবতই কূটনৈতিক মহলে জোর আলোড়ন ফেলে দিয়েছে।

এক বছর আগে উত্তর কোরিয়া যখন একের পর এক মিসাইলের সফল উৎক্ষেপণ করে চলেছে, তখন অন্যান্য রাষ্ট্রগুলি তার বিরোধিতা করেছিল। বিশেষত তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প উত্তর কোরিয়ার উপর বিভিন্নভাবে নিষেধাজ্ঞা জারি করেন। এরপর অবশ্য উভয়পক্ষের দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে ছিল। তবে এবার চলতি বছরের শুরুতেই উত্তর কোরিয়ার শক্তি প্রদর্শন আন্তর্জাতিক মহলে আরও এক আতঙ্কের সৃষ্টি করেছে।