“বাংলা ভাষায় কথা বললেই কেউ বাঙালি হয়ে যায় না” নাম না করে প্রধানমন্ত্রীকে কটাক্ষ মমতার

5

বাংলায় ভোট বৈতরণী পার হতে বাংলা ভাষাকেই টার্গেট করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। কেন্দ্রীয় সূত্রের খবর, বাংলা ভাষা শিখতে রীতিমতো কাঠখড় পোহাচ্ছেন নরেন্দ্র মোদি। গুজরাটি হরফে বাংলা ভাষা বাংলায় কথা বলা অভ্যাস করছেন তিনি। শুধু তাই নয়, বাংলার মনীষীদের সম্পর্কেও রীতিমতো পড়াশোনা করছেন তিনি। মোদির এই প্রয়াসকে কেন্দ্র করে রীতিমতো সমালোচনা করলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, “বাংলা ভাষায় কথা বললেই কেউ বাঙালি হয়ে যায় না”। উল্লেখ্য, ৭১তম “মন কি বাত” অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে বাংলায় কবিতা বলেছেন নরেন্দ্র মোদি। তাও যেমন তেমন কবি নন। বাংলার বিস্মৃতপ্রায় কবি মনমোহন বসুর কবিতার লাইন উদ্বৃত করেছেন প্রধানমন্ত্রী। বক্তব্যের মাঝে ঋষি অরবিন্দের দর্শন, গুরু নানককে স্মরণ করেছেন তিনি।

বাংলার মানুষের মন পেতে প্রধানমন্ত্রীর এহেন প্রয়াসের প্রতি তীব্র কটাক্ষ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেছেন, টেলিপ্রম্পটারের যুগে গুজরাটি হরফে বাংলা লিখেবাংলায় কথা বলা অভ্যাস করা কোনো ব্যাপারই নয়। উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী যখন কোথাও সভা করেন তখন তার পোডিয়ামে টেলিপ্রম্পটারের উপস্থিতি চোখে পড়ে। নাম না করেও মুখ্যমন্ত্রী যে এদিন প্রধানমন্ত্রীকেই কটাক্ষ করেছেন, তা তাঁর বক্তব্য থেকেই স্পষ্ট।

মুখ্যমন্ত্রী আরো বলেছেন,” আমি কমপক্ষে ১৫টি ভাষা জানি। হিন্দি, উর্দু, নেপালি, গোর্খা ভাষায় কথা বলতে পারি। তার জন্য আমাকে টেলিপ্রম্পটার দেখতে হয় না। এ নিয়ে গর্ব করার তো কিছু নেই। গর্ব তখনই হবে যখন স্থানীয় মানুষের ভাষায় তাদের সঙ্গে একটু কথা বলা যাবে।” তিনি বলেছেন, “হ্যাঁ, ভাষাগুলো আমি একটু-আধটু জানি। প্রয়োজনে চ্যালেঞ্জ করুন। কেউ করবেন কি চ্যালেঞ্জ?”