জীবনে আর কোনদিন কোন নায়ক-নায়িকার গাড়ি চালাবেন না! জানালেন পরীমনির গাড়ির চালক

29
জীবনে আর কোনদিন কোন নায়ক-নায়িকার গাড়ি চালাবেন না! জানালেন পরীমনির গাড়ির চালক

মাদক কান্ড এবং পর্ণ কান্ড আমাদের ভারতবর্ষের সীমানা পেরিয়ে চলে গেছে বাংলাদেশ। আপাতত পরীমনিকে নিয়ে রীতিমতো উত্থান আমাদের প্রতিবেশী দেশ। অভিনেত্রীর বাড়িতে প্রচুর বিদেশী মদের বোতল বেআইনিভাবে মজুদ ছিল, এমনটাই অভিযোগ করা হয়েছে। অভিনেত্রীকে বাংলাদেশের র্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ান গ্রেপ্তার করেন এবং জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে আসেন তাকে। একদিকে যেমন অভিনেত্রীর আজ এই পরিণতির জন্য অনেকে তাকে দায়ী করেছেন, আবার অনেকে অভিনেত্রীর পাশে সহমর্মিতার সাথে দাঁড়িয়েছেন।

তবে পক্ষে-বিপক্ষে কথার মাঝখানেই উঠে এলো পরীমনির গাড়ির চালক নজির হোসেনের কথা। অভিনেত্রীর গাড়ির চালক স্পষ্ট জানিয়েছেন, তিনি আর কোনদিন কোন নায়ক-নায়িকার গাড়ি চালাবেন না। বেতন কম যদি হয় তাও তিনি চালিয়ে নেবেন কিন্তু জীবনে আর কখনো ঝামেলায় জড়াতে যাবেন না তিনি। নিজের জীবনের সুখ শান্তি বজায় রাখার জন্য এমনটাই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অভিনেত্রীর গাড়িচালক।

এদিকে পরীমনির সঙ্গে যোগাযোগ ছিল সমাজের অনেক উচ্চ পদে থাকা মানুষের। এই সমস্ত মানুষদের থেকে তিনি কি কি সুযোগ সুবিধা পেতেন এবং কেন তাদের সাথে তিনি যোগাযোগ রাখবেন তা খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারী পুলিশ। বর্তমানে ঢাকার গুলশান বিভাগের এডিসি মোহাম্মদ শাকলাইনের সঙ্গে নাম জড়িয়ে যায় অভিনেত্রীর।

অভিনেত্রীর সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ একই কক্ষে থাকার অভিযোগে তাকে আপাতত সাসপেন্ড করা হয়েছে। অভিযুক্ত ওই অফিসারের বাড়িতে অভিনেত্রীর আসা যাওয়া ছিল এবং তারা একসাথে মদ্য পান করতেন, এমনটাই জানিয়েছেন পরিমনির ড্রাইভার নাজির হোসেন।