বিয়েতে পুরনো জুয়েলারি পরায় ট্রোলের শিকার নাতাশা

6
বিয়েতে পুরনো জুয়েলারি পরায় ট্রোলের শিকার নাতাশা

বিবাহ এমনই একটি অনুষ্ঠান যার দ্বারা শুধু মাত্র দুটি মানুষ নয় দুটি পরিবারের সারা জীবনের জন্য এক হয়ে যায়। বিবাহের দ্বারা আত্মীয়-স্বজন পরিবারের ঘনিষ্ঠ মহল থেকে শুরু করে বন্ধু-বান্ধব সকলেই এক জায়গায় একত্র হন। বিয়ে মানেই চার দিনের একটি বড় অনুষ্ঠান। এই বিয়ে নিয়ে বহু মানুষের বহু স্বপ্ন থাকে। বর্তমানে আমরা বেশ অন্যভাবে বিয়ের অনুষ্ঠান করতে দেখি অনেককে। চিরাচরিত বিয়ের প্রথার বাইরে ডেস্টিনেশন ওয়েডিং থেকে শুরু করে, তিনটি ধর্ম মেনে বিয়ে, সবকিছুই চলছে এখন।

সাধারণ মানুষের পাশাপাশি সেলিব্রিটিদের ও বিয়ে নিয়ে অনেক স্বপ্ন থাকে। নিজেদের স্বপ্ন পূরণ করার অনেক সুযোগ পান তারা। জাঁকজমকপূর্ণ এই বিয়ে দেখতে আমাদেরও সমানভাবে ভালো লাগে। প্রিয় অভিনেতা এবং অভিনেত্রী বিয়ে দেখতে টিভির পর্দায় চোখ রাখি আমরা। তেমনি মেয়েদের পছন্দের অভিনেতা বরুণ ধাওয়ানের বিয়ে হলো কিছুদিন আগেই।

কলেজ লাইফের গার্লফ্রেন্ড নাতাশা দালাল এর সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়লেন বারুন ধাবান। বিশেষ এই দিনটায় কিভাবে তারা সে সেজে উঠবেন তা আগে থেকে নির্ধারিত করে রেখেছিলেন তারা। বিবাহের অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছিল আলিগড়। ২৪ শে ফেব্রুয়ারি জাঁকজমক করে বিবাহ সম্পন্ন হলো এই তারকার।

প্রিয় অভিনেতার বিয়ে হতে সোশ্যাল মিডিয়ায় শুভেচ্ছা বার্তা তে ভরে গেল। চোখ ধাঁধানো ছবিগুলি নিমেষে ভাইরাল হয়ে গেল সোশ্যাল মিডিয়াতে। মানিশ মাল্যত্রার আউটফিট সেজেছিলেন দুজনেই। তাদের থিম রং ছিল সাদা।
মেহেন্দি থেকে বিয়ে সবেতেই তারা পড়েছিলেন সাদা রঙের পোশাক। বিয়েতে বরুন ধাবান পড়েছিলেন সাদা শেরওয়ানি কুর্তা, নাতাশা পড়েছিলেন সাদা রঙের লেহেঙ্গা। সঙ্গে ছিল হীরের জুয়েলারি।

তবে এই গহনাতেই চোখ আটকে গিয়েছে সকলের। নাতাশার ব্রাইডাল লুক ভাইরাল হওয়ার সাথে সাথে শুরু হয়ে যায় ট্রোলিং। নাতাশা যে হিরের নেকলেস করেছিলেন সেটি নাকি অনেক পুরনো। অনেক নেটিজেন বলেছেন যে, এর আগে একটি হাইপ্রোফাইল বিয়েতে নাতাশাকে একই রঙের জুয়েলারি পড়তে দেখা গিয়েছিল। বিয়েতে কেন পুরনো জুয়েলারি পরে বিয়ে করলেন নাতাশা দালাল, তাই নিয়ে শুরু হয়েছে উপহাস। তবে এই বিষয়ে বরুণ ধাওয়ান এবং নাতাশা দালাল এর পক্ষ থেকে কোনরকম মন্তব্য শুনতে পাওয়া যায়নি।