প্রানের অস্তিত্ব আছে শুক্র গ্রহেও, এমনটাই দাবি নাসার বিজ্ঞানীদের

15
প্রানের অস্তিত্ব আছে শুক্র গ্রহেও, এমনটাই দাবি নাসার বিজ্ঞানীদের

এবার মঙ্গলের পরে শুক্রেও নাকি আছে প্রাণ, এমনটাই দাবি করছে নাসার বিজ্ঞানীরা। কারণ শুক্রে এবার পাওয়া গেছে ফসফিন গ্যাস। আর সেটা থেকেই বিজ্ঞানীরা দাবি করে বসেছে পৃথিবীর সবচেয়ে কাছের গ্রহ শূক্রতেও এবার থাকতে পারে প্রাণ । কিন্তু আমরা এতোদিন যে ভূগোল বইতে পরে এসেছি শুক্রে কার্বন ডাই অক্সাইডে ভর্তি। আর সেই কারণেই শুক্রে তাপমাত্রা বেশী।

এখানেই শেষ না শুক্র সৌরজগতের মধ্যে এমন এক গ্রহ যেটা কিনা পশ্চিম থেকে পূর্ব দিকে নয়, পূর্ব থেকে পশ্চিম দিকে ঘুরে বেড়ায়। বিজ্ঞানীরা তাই বলেছে শুক্রের তাপমাত্রা এতোটাই বেশী যে কোনো কঠিন পদার্থকে গলিয়ে দিতে পারে সহজেই। সেখানেই কিভাবে প্রাণের সন্ধান পাওয়া যেতে পারে? এটা নিয়েই উঠছে প্রশ্ন।

এদিকে অবশ্য চিলির আটাকামা মরুভূমি থেকে ও হাওয়াই দ্বীপপুঞ্জ থেকে শক্তিশালী টেলিস্কোপ দিয়ে নজর রাখা হয়েছিল শুক্রের দিকে। আর সেখানেই দেখা গেছে আপার ক্লাউড লেক। আর সেখানেই নাকি আছে ফসফিন গ্যাস, যা কিনা প্রাণ ধারণের জন্য উপযোগী।

তবে বিজ্ঞানীরা এটাও জানিয়েছে, এই ফসফিনকে ধ্বংস করতে পারে শুক্রের চারদিকে পুঞ্জীভূত হওয়া মেঘ। তাই এখন প্রাণ থাকার নিশ্চিত ধারণাটাও সঠিক বলে দাবি করা সম্ভব হচ্ছে না। এদিকে অনেকেই অনেক কথা বলেছে। তবে কার্ডিফ বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অফ ফিজিক্স এস্ট্রোনমির গবেষক গ্রেভিস বলেছেন, এই ফসফরাসের উপস্থিতি আছে বলেই যে প্রাণের উপস্থিতি আছে সেটা বলা সম্ভব না।