সম্প্রতি এক নতুন প্ল্যানেটের খোঁজ পেল নাসা, যা নিমেষেই গলিয়ে দিতে পারে ধাতু

10
সম্প্রতি এক নতুন প্ল্যানেটের খোঁজ পেল নাসা, যা নিমেষেই গলিয়ে দিতে পারে ধাতু

ধাতু গলিয়ে দিতে পারে নিমেষে, আজ্ঞে হ্যা একেবারে নিমেষের মধ্যেই, এই যে এক্সোপ্ল্যানেট সেটা কিন্তু খুব সহজেই এই কাজ করে ফেলতে পারে, কারণ তার তাপমাত্রা এতোটাই। এই গ্রহের নাম বিজ্ঞানীরা দিয়েছে হট নেপচুন। কিন্তু এর নাম নেপচুন কেনো? বা একে সাধারণ প্ল্যানেট না বলে কেনো বলা হল এক্সোপ্ল্যানেট? এটা নিয়েই প্রশ্ন সবার মনে। তাই বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, যে সব গ্রহ নেপচুনের কাছাকাছি, ও সৌরজগতের বাইরে, সেটাকেই বলে এক্সোপ্ল্যানেট।

এবার আমরা ছোটবেলায় ভূগোল বইয়ের পাতায় যে সব পড়েছি যে সূর্য পাক খায় না, তার গ্রহরা তাকে প্রদক্ষিণ করে। সেটা আমাদের পৃথিবী থেকে শুরু করে, মঙ্গল, বুধ, বৃহস্পতি, শুক্র, শনি সবাই। তবে এই যে এক্সোপ্ল্যানেটের কথা হচ্ছে সেখানে কিন্তু কোনোভাবেই সৌরজগতের মধ্যে থাকে না, তারা তাদের কাছের নক্ষত্রের অক্ষপথেই পাক খায়। এই নক্ষত্র গুলোর আয়তন থাকে খুবই ছোট, যেটা কিনা পাক খেতে খেতে নক্ষত্রের সাথে ঘষা লাগলেই একেবারে ধ্বংস হয়ে যায়।

এই নিয়ে জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা আরও জানিয়েছেন, গ্রহ ও নক্ষত্রের যে ব্যবধান সেটার নাম নেপচুন ডিসার্ট। যেখানে এক্সোপ্ল্যানেট বেশী একটা চোখে পরে না। সম্প্রতি ন্যাশনাল এয়ারোনটিকস অ্যান্ড স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন ওরফে নাসা-র ট্র্যানজিটিং এক্সোপ্ল্যানেট সার্ভে স্যাটেলাইট মারফত জানা গেছে এই এক্সোপ্ল্যানেটের কথা। যেটা দেখে অবাক সবাই। এই প্ল্যানেটের নাম দেওয়া হয়েছে লটিটি ৯৭৭৯বি।