জীবনের প্রথম প্রেমকেই স্ত্রী রূপে দেখতে চেয়েছিলেন নাগা চৈতন্য

16
জীবনের প্রথম প্রেমকেই স্ত্রী রূপে দেখতে চেয়েছিলেন নাগা চৈতন্য

সম্প্রতি দক্ষিণ ইন্ডাস্ট্রির জনপ্রিয় জুটি সামান্থা রুথ এবং নাগা চৈতন্যর বিবাহিত জীবন বিচ্ছিন্ন হয়েছে। এ ঘটনায় হতভম্ব হয়ে গেছে এই জুটির অনুগামীরা। নাগা চৈতন্য এবং সামান্থার বিয়ে ভাঙার পর শোনা যাচ্ছে একটি গুঞ্জন। জানা গেছে নাগা চৈতন্য অন্য এক অভিনেত্রীকে বিয়ে করার জন্য ইচ্ছুক ছিল। নাগা চৈতন্য ২০১৭ সালের সামন্থার সঙ্গে বিয়ের বাঁধনে আবদ্ধ হয়। এরপর শোনা গিয়েছিল যে অভিনেত্রী শ্রুতি হাসানের সঙ্গে নাগা চৈতন্যর সম্পর্ক ছিল। ২০১৩ সালে নাগা চৈতন্যর সঙ্গে শ্রুতির দেখা হয় এবং তারপরেই “প্রেমম” নামের একটি ছবিতে অভিনয় করেছিলেন একসাথে। এই জুটির মধ্যে বেশ ভাল রকমের সম্পর্কের সূত্রপাত হয়েছিল এবং চেয়েছিলে নাগা চৈতন্য শ্রুতিকে বিয়ে করতে, কিন্তু অবশেষে এই সম্পর্ক আর টেকেনি।

এই সম্পর্কের পরেই অভিনেতা বিয়ে করেন সমন্থাকে। প্রায় চার বছর ধরে তাদের বিবাহ বৈবাহিক সম্পর্ক টিকে ছিল, কিন্তু অবশেষে এই সম্পর্ক ভেঙে গেল। ২রা অক্টোবর তারা বিবাহ বিচ্ছেদের কথা জানান। শ্রুতি এই ঘটনার সাপেক্ষে লেখেন,” অনেক চিন্তাভাবনা করেছি এবং তারপরেই চৈতন্য এবং আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি বৈবাহিক সম্পর্ক ভাঙার। আমরা ভালো বন্ধু ছিলাম বলেই এতদিন আমাদের সম্পর্কটা টিকে গেছে, যেভাবে আমাদের বন্ধুত্বের শেখর তৈরি হয়েছে, সেটাই আমাদের সম্পর্ককে আগামী জীবনে ধরে রাখবে।

সম্পর্ক ভাঙ্গার পরে একাধিক অভিযোগের তীর এসেছে সামান্থার দিকে। এই বিষয়ে অভিনেত্রী জানান,” বহু অভিযোগ আমার দিকে আসছে আমি নাকি দাম্পত্যজীবনে থাকাকালীন অন্য কারো সঙ্গে সম্পর্ক করেছিলাম। এমনকি বাচ্চা চাই না বলে গর্ভপাত করিয়েছি। এমন সমস্ত নানান অভিযোগ আমার বিরুদ্ধে এসেছে, কিন্তু আমি এখনো পর্যন্ত চুপ রয়েছি। আমি শুধু একটা কথাই বলতে চাই যে এই সমস্ত কিছু অভিযোগ আমাকে কখনো ভেঙে দিতে পারবে না”।

একটি সংবাদপত্রের মাধ্যমে জানা গেছে যে বিবাহ বিচ্ছেদের পর সমন্থাকে ২০০ কোটি টাকা খোরপোশ দিতে চেয়েছিল চৈতন্য কিন্তু এই ব্যাপারে সমন্থা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন , সম্পর্ক ভেঙে দেওয়ার জন্য একটা টাকাও তিনি নেবেন না।