লাল চদনের থেকেও বেশি ইনকাম এই ফার্মিং ব্যবসায়

8
লাল চদনের থেকেও বেশি ইনকাম এই ফার্মিং ব্যবসায়

ঘটবে মীরাকেল! মাত্র একবার বিনিয়োগে ৪০ বছর পর্যন্ত লাভ পাওয়া যেতে পারে। এমনই ফার্মিং ব্যবসার খবর দিতে চলেছি আমরা আজকে এই প্রতিবেদনে। অনেকেই আজকাল শুধুমাত্র একটি আয়ের ওপর ভরসা করে জীবন কাটাতে চাইছেন না কারণ দিন দিন যে হারে বাজার মূল্য বাড়ছে তাতে আয় বৃদ্ধি আবশ্যিক হয়ে পড়েছে। তাই অনেকেই ব্যবসার কথা ভেবেই থাকেন। তেমনি একটি ফার্মিং ব্যবসার বিষয়ে খোঁজ দিতে চলেছি আমরা তা হল এমন একটি গাছ লাগান যাতে করে ৪০ বছর পর্যন্ত নিশ্চিন্তে আয় করা যাবে। কিসের ব্যবসা? সেটি হল বাঁশ চাষ। এমনকি প্রতিটি গাছ কিনতে সরকারের থেকেও পেয়ে যাবেন ৫০ শতাংশ সহায়তাও।

আসুন জেনে নেওয়া যাক এই বাঁশ চাষের বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলি : বাঁশ চাষের জন্য তেমন কোন বিশেষ রক্ষণাবেক্ষণে প্রয়োজন পড়ে না। কোন ব্যক্তি যদি ৩০ বছর বয়সে বাস গাছ লাগান ৭০ বছর পর্যন্ত ফল পাবেন। ১৪০০ রকমের বাঁশের জাত রয়েছে এবং বিশ্ববাজারে বাঁশের চাহিদাও প্রবল।

বাঁশ গাছ বড় হতে তিন থেকে চার বছর সময় লাগে। ধরা যাক এক হেক্টর জমিতে ১৫০০ গাছ লাগানো হয়েছে। তাতে খরচ পড়বে ১.৮০ লাখ টাকা। এবার এ বাঁশ বড় হলে বিক্রি করে লাভ আসবে, ৭ থেকে ৯ লাখ টাকা।

বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন আগামী ২০২৫ সালের মধ্যেই বিশ্ববাজারে আসবাবের চাহিদা এক লাখ কোটি ছুঁয়ে যাবে, আর তার ফলে ভারতের শেয়ার বাজারও হু হু করে বাড়বে। তাই এখন বাঁশ গাছ চাষই মুনাফা এনে দেবে।