স্বাস্থ্যের জন্য একেবারেই ভালো নয় দুধ চা! কি বলছে চিকিৎসকরা

15
স্বাস্থ্যের জন্য একেবারেই ভালো নয় দুধ চা! কি বলছে চিকিৎসকরা

ঘুম কাটানোর জন্য চায়ের থেকে ভালো ওষুধ আর কিছু আছে! আবার সেই চা যদি দুধ চা হয় তাহলে তো আর কোনো কথা নেই। বাঙালিদের অন্যতম পছন্দের পানীয় দুধ চা। তবে চিকিৎসকদের মতে, দুধ চা স্বাস্থ্যের জন্য একেবারেই ভালো নয়। প্রতিদিন দুধ চা খেলে অনেক সময়ই ওজন বেড়ে যায়। সুতরাং এই পরিস্থিতিতে অবশ্যই সতর্ক থাকতে হবে। অনেকে আবার চা-এ দুধের সাথে সাথে চিনিও মেশান। এই দুই মিলেমিশে চা পরিণত হয় হাই ক্যালোরি ফুডে।

৭০ ক্যালোরি থাকে ফুল ক্রিম মিল্ক ও এক চা চামচ চিনি মেশানো এক কাপ চায়ে। আর প্রতিদিন যদি চার কাপ দুধ চা কেউ খায় তাহলে শরীরে ২৮০ ক্যালোরি ঢোকে। তাই ওজন বাড়া খুবই সাধারণ।

• আসলে দুধ চা বানানোর সময় বেশি করে ফোটাতে হয়। এক্ষেত্রে চা বেশি গরম করলে ট্যানিন বের হয়। বেশি পরিমাণ ট্যানিন শরীরের জন্য অত্যন্ত খারাপ। এছাড়া যদি বারবার চা যদি ফোটানো হয় তাহলে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ধ্বংস হয়ে যায়। পাশাপাশি হজমে সমস্যা শুরু হয়, বিপাকের নানা জটিলতা দেখা দেয়। তাই দুধ চা খাওয়া ঠিক নয়।

• আর একান্তই যদি দুধ চা খেতে হয় তাহলে দুধের চা হতে হবে ফ্যাট ছাড়া। বাজারে ফ্যাট ছাড়া এমন অনেক দুধ পাবেন। আবার চিনির বদলে সুগার ফ্রি খেতে হবে। কোনো গুঁড়ো দুধ ব্যবহার করা যাবে না। কারণ গুঁড়ো দুধে চিনি থাকে।

• দুধ চায়ের বদলে যদি আপনি গ্রিন টি খান তাহলে এই চা আপনার সমস্যা দ্রুত কমিয়ে দেবে।আর এই গ্রিন টি-তে ভালো পরিমাণ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকায় তা শরীরের জন্য খুব ভালো। এক্ষেত্রে বিপাকের হার বাড়ানো, ওজন কমানোর জন্য অত্যন্ত উপকারী গ্রিন টি। তাই এই চা অবশ্যই পান করুন।

• সুস্থ থাকার জন্য খাবার পানীয়ের পাশাপাশি শরীরচর্চাও করতে হবে। নিজের শারীরিক অবস্থানুযায়ী নিয়মিত ব্যায়াম অভ্যাস করতে হবে। অন্যান্য ব্যায়াম না করলেও সকলে নিয়মিত অন্তত ৩০ মিনিট হাঁটতে পারেন। তবেই ওজন কমবে। নাহলে এহেন গুরুতর সমস্যা থেকে মুক্তির পথ নেই।