প্রায় ৩০-৫০ শতাংশ বন্ধ্যাত্বের জন্য দায়ি থাকেন পুরুষেরাঃ বলছে সমীক্ষা

3
প্রায় ৩০-৫০ শতাংশ বন্ধ্যাত্বের জন্য দায়ি থাকেন পুরুষেরাঃ বলছে সমীক্ষা

আগেকার দিনে বিয়ের পর কোনো দম্পতির সন্তান না হলে মনে করা হত এই সমস্ত সমস্যাই মেয়েটির জন্য হচ্ছে। সারাজীবন মেয়েটিকে বন্ধ্যা নামে আখ্যায়িত করা হত। কোনরকম মেডিকেল টেস্ট করা হত না। কিন্তু আজকালকার দিনে সেই ছবি গেছে উল্টে। বর্তমান সময়ে প্রায় ৩০ থেকে ৫০ শতাংশ বন্ধ্যাত্বের জন্য দায়ি থাকেন পুরুষেরা – পরিসংখ্যা আপাতত এটাই বলছে। তাই পরিবার পরিকল্পনা করার ইচ্ছে থাকলে প্রথম থেকেই বেশ কিছু বিষয়ে সতর্ক থাকা খুবই জরুরি।

পিতৃত্বের স্বাদ পেতে হলে পুরুষের পর্যাপ্ত স্পার্ম কাউন্ট অর্থাৎ শুক্রাণুর সংখ্যা থাকাটা অত্যন্ত জরুরি। কিন্তু অতিরিক্ত মদ্যপান, ধূমপান, ব্যায়াম বা শ্রমসাধ্য শরীরচর্চার মতো একাধিক বিষয় স্পার্ম কাউন্টের ওপর অধিক মাত্রায় প্রভাব ফেলে। যার কারণে অনেক পুরুষ বন্ধ্যা হয়ে যায়। তাই নিজের শরীরকে সুস্থ রাখতে এবং পিতৃত্বের স্বাদ থেকে যদি বঞ্চিত হতে না চান তাহলে এসব অভ্যাস যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বর্জন করা উচিত। তাই চলুন দেরী না করে জেনে নেওয়া যাক কি সেই কারণ যার ফলে আপনি নিজেই নিজের বিপদ ডেকে আনছেন।

সম্প্রতি অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির হিউম্যান রিপ্রোডাকশন জার্নালে একটি গবেষণার রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে। সেই রিপোর্টে বলা হয়েছে যে অতিরিক্ত টাইট আন্ডারওয়্যার বা অন্তর্বাস পরলে স্পার্ম কাউন্ট কমে যেতে পারে।

এমন অনেকেই আছেন যারা কোলের উপর ল্যাপটপ রেখে কাজ করেন। কিন্তু এতে হতে পারে মহা বিপদ। কারণ শরীরের বাইরে অংশে শুক্রাশয় থাকে। আর কোলে ল্যাপটপ রেখে কাজ করলে সেই উত্তপ্ত ল্যাপটপের সংস্পর্শে স্পার্মের স্বাভাবিক উৎপাদন বাধাপ্রাপ্ত হয়।

পিতৃত্বের সুখ থেকে বঞ্চিত হতে না চাইলে অবিলম্বে অতিরিক্ত মদ্যপানের অভ্যাস ত্যাগ করা ভীষণই দরকার। কারণ অতিরিক্ত মদ্যপান শুক্রাণুর স্বাভাবিক উৎপাদনকে বাধাপ্রাপ্ত করে। ফলে সেক্ষেত্রেও কমে যায় শুক্রাণুর সংখ্যা।

অনেকেই অতিরিক্ত ধূমপান করে থাকেন। সিগারেট ছাড়া যেন একমুহূর্ত থাকতে পারেন না। কিন্তু এই মাত্রাতিরিক্ত ধূমপানের অভ্যাসের ফলে আপনি যে অজান্তেই নিজের বিপদ ঘটাচ্ছেন তা জানেন কি! কারণ অতিরিক্ত ধূমপান শরীরে ফ্লুইডের পরিমাণ কমিয়ে দেয়। যার প্রভাব পড়ে স্পার্ম কাউন্টের ওপর। ফলে কমে আসে শুক্রাণুর সংখ্যা। এছাড়াও সিগারেটের মধ্যে থাকা নিকোটিন শুক্রাণুর স্বাভাবিক উৎপাদনেও পরোক্ষভাবে বাধা সৃষ্টি করে।

অতিরিক্ত গরম জলে স্নান করার অভ্যাস অনেকেরই আছে। তা শুক্রাশয়ের তাপমাত্রা বাড়িয়ে দেয়। ফলে শুক্রাণুর স্বাভাবিক উৎপাদন কমে যায়।

আবার আল্ট্রা ভায়োলেট রে থেকে নিজেদেরকে বাঁচাতে মহিলাদের পাশাপাশি সানস্ক্রিনের ব্যবহার করে থাকেন অনেক পুরুষ। কিন্তু জানেন কি এই সানস্ক্রিনের মধ্যে উপস্থিত বিপি-২, ৩০এইচ-বিপি শুক্রাণুর সংখ্যা কমিয়ে দেয়। তাই অতিরিক্ত সানস্ক্রিন ব্যবহার এড়িয়ে চলাই শ্রেয়।

আর সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হল, স্পার্ম কাউন্ট স্বাভাবিক রাখতে সুস্থ, স্বাভাবিক এক যৌন জীবন প্রয়োজন। তা ঠিকঠাক না হলে ধীরে ধীরে কমে যেতে পারে স্পার্ম কাউন্ট ।

এছাড়া শুক্রাণুর স্বাভাবিক উৎপাদনে বাধা সৃষ্টি করার অন্যান্য কারণগুলো হল মাত্রাতিরিক্ত কাজের চাপ, অবসাদ, পর্যাপ্ত ঘুম না হওয়া ইত্যাদি।