লিঙ্গ পরিবর্তন করে দিনের পর দিন চলত গন ধর্ষণ, ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই নড়েচরে বসে প্রশাসন

3
লিঙ্গ পরিবর্তন করে দিনের পর দিন চলত গন ধর্ষণ, ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই নড়েচরে বসে প্রশাসন

সাধারণভাবে আমাদের দেশে শিশু পাচার ঘটনা স্বাভাবিকভাবেই হয়ে থাকে প্রত্যেক বছরের। এই শিশু পাচারের কারবার আরো বেশি পরিমাণে বেড়ে যাচ্ছে সেটা হয়তো আমরা অনেকেই জানিনা। দেশের প্রতিটি কোনা কোনা থেকে দুষ্কৃতীরা, পাচারকারীরা শিশুদের নানারকম কাজকর্মের সঙ্গে যুক্ত করায়। তবে এইবার এমন একটি ঘটনা ঘটল যা সত্যিই গা শিউরে দেওয়ার মতো।

ঘটনাটি ঘটেছে দিল্লিতে একটি ছেলে যাকে অভিযুক্তরা জোর করে লিঙ্গ পরিবর্তন করায় এবং মাসের পর মাস ধরে তার উপর গণধর্ষণ চালায় তারা ঘটনাটি যখন সকলের প্রকাশ্যে আসে তার পরেই সেই অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে হয় মামলা করা হয়। খবর সূত্রে জানা গেছে যে তিন বছর আগেকার ঘটনা যখন সেই ওই ছেলেটির সাথে দেখা হয়েছিল ওই অভিযুক্তদের একটি নাচের অনুষ্ঠানে দিল্লির লক্ষ্মীনগর অঞ্চলে।

অভিযুক্তরা তাকে লোভ দেখায় অন্যান্য জায়গাতে নাচ করানোর জন্য এবং শুরু করে তাদের কৃতকর্ম। সেই ছেলেটিকে প্রথমদিকে মাদক দিত এবং তারপরে তাকে লিঙ্গ বদল করানোর জন্য জোর করে অস্ত্রোপচার করায়। তারপর থেকেই সেই অভিযুক্তরা ছেলেটির উপর গনধর্ষণ চালাতো। তাকে নানা রকম ওষুধ দেওয়া হতো যাতে হরমোন বদলে যায় এবং সে মেয়ের মতো হয়ে যায়।

এরপর অনেক খরিদ্দারের কাছে টাকার বিনিময়ে ওই ছেলেটিকে পাঠানো হতো। অনেক সময় হয়ে ছেলেটিকে ভিক্ষা করার জন্য রাস্তায় পাঠানো হতো। সেই ছেলেটি পুলিশকে জানিয়েছে যে, ওই অভিযুক্তরা তাকে হুমকি দিয়েছিল যে যদি সে কোন রকম প্রতিবাদ করে তাহলে তার পরিবারকে তারা শেষ করে দেবে।

বেশ কয়েক বছর পর যখন ওই ছেলেটির একটি বন্ধুকে অভিযুক্তরা তাদের জায়গাতে নিয়ে আসে। তখন মার্চ মাসের লকডাউন ছিল সেই সময়ে তারা প্ল্যান করেছিল সেখান থেকে পালিয়ে যাবে এবং পালিয়ে সেই ছেলেটি তার বন্ধুকে নিয়ে মায়ের কাছে যায়, এবং সেখান থেকে অভিযুক্তরা খবর পেয়ে তাদের আবার তুলে নিয়ে আসে।

কিছু দিন পর আবার সেখান থেকে পালিয়ে যায় তারা দিল্লির স্টেশনে, সেখানেই তাদের সঙ্গে পরিচিতি হয় একজন আইনজীবির। সেই আইনজীবী সমস্ত ঘটনা জেনে তাদের নিয়ে যায় মহিলা কমিশন দপ্তরে। এইরকম একটি ভয়ঙ্কর ঘটনা সকলের প্রকাশ্যে আসার পর সকলে স্তম্ভিত।