‘এখানে কে মদ খান” রাহুল গান্ধীর প্রশ্নে হতবাক কংগ্রেসের অনেক বড়বড় নেতা!

8
'এখানে কে মদ খান” রাহুল গান্ধীর প্রশ্নে হতবাক কংগ্রেসের অনেক বড়বড় নেতা!

আরও একবার কংগ্রেসের সভাপতি সোনিয়া গান্ধীর তরফ থেকে আয়োজিত রাজ্যের সভাপতিদের নিয়ে একবার মদের কথা ওঠে। ২০১৭ সালে এই ইস্যুতে প্রশ্ন করা রাহুল গান্ধী মঙ্গলবার হওয়া এই বৈঠকে আরও একবার একই প্রসঙ্গ তোলেন।

মদ না পান করার কথা বলা হয়েছে কংগ্রেসের তরফ থেকে শুরু হতে চলা সদস্যতা অভিযানের নিয়মে। খবর অনুযায়ী, বৈঠকে এমন আলোচনা হওয়ায় অনেক বড় নেতাই হতবাক হয়ে গিয়েছেন।

কংগ্রেসের সদস্যতা অভিযান শুরু হচ্ছে আগামী ১ নভেম্বর থেকে। আর সেই সদস্যতা অভিযানের ফর্মে এই নিয়ম দুটিকে যুক্ত করা হয়েছে। দলের সদস্যতার ফর্মে ১০টি এমন নিয়ম রয়েছে যেখানে মদ খাওয়া থেকে শুরু করে ড্রাগস না নেওয়া প্রতিজ্ঞা পর্যন্ত দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি সদস্যরা সার্বজনীন স্থানে দলের নীতির সমালোচনা করতে পারবেন না বলেও নিয়ম করা হয়েছে।

সূত্রের খবর, বৈঠকে রাহুল গান্ধী জিজ্ঞাসা করেন, ‘এখানে কে মদ খান ? ” এই প্রশ্নেই কংগ্রেসের অনেক বড়বড় নেতা হতবাক হয়ে যান। অবশেষে নবজ্যোত সিং সিধু মোর্চা সামলান। তিনি বলেন, ‘আমার রাজ্যে বেশিরভাগ মানুষ মদ খায়।”

যদিও তিনি এই নিয়ে কারও নাম উল্লেখ করেন নি। উল্লেখ্য, মদ থেকে দূরে থাকা আর খাদির পোশাক পরা কংগ্রেসের বহু পুরনো নিয়ম। এখন পরিস্থিতির সঙ্গে মোকাবিলা করার জন্য সদস্যতার নিয়মে বদল আনা দরকার, তবে এক ঝটকায় সব বদলে যেতে পারে না। একমাত্র ওয়ার্কিং কমিটিই নিয়মে বদল আনতে পারে। আর মদ না খাওয়ার নিয়ম মহত্মা গান্ধীর আমল থেকেই চলে আসছে।