নিজ উদ্দ্যোগে রাস্তা সংস্করণ শুরু করলো মালদা তৃণমূল সংখ্যালঘু সেল এর সহ-সভাপতি আনহারুল হক

9
নিজ উদ্দ্যোগে রাস্তা সংস্করণ শুরু করলো মালদা তৃণমূল সংখ্যালঘু সেল এর সহ-সভাপতি আনহারুল হক

মালদা,৩০ এপ্রিল : প্রশাসনের পক্ষ থেকে উদ্যোগ না নেওয়ায় সাদুল্লাপুর শ্মশান থেকে পিরানা পির পর্যন্ত দীর্ঘ সাড়ে তিন কিলোমিটার রাস্তা সংস্কারের নিজস্ব উদ্যোগ নিল মালদা জেলা তৃণমূল সংখ্যালঘু সেল এর সহ- সভাপতি আনহারুল হক।
মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, ধর্ম নিজের নিজের উৎসব সবার। এই শ্লোগানকে সামনে রেখে শনিবার সকালে শ্রমিকদের সঙ্গে নিজেও রাস্তা সংস্কারের কাজে নেমে পড়েন আনহারুল বাবু।

আর কদিন বাদেই মুসলিমদের শ্রেষ্ঠ উৎসব ঈদ। এই উপলক্ষে ইংরেজবাজার থানার কাজিগ্রাম গ্রাম পঞ্চায়েত পিরানা পির দরগাহ এলাকায় বিশাল মেলা বসে। কয়েকদিন ধরে চলে সেই মেলা। ৫-৬ লক্ষ মানুষের সমাগম হয় এই মেলায়। বেহাল রাস্তার কারণে অসুবিধায় পড়েন দূর-দূরান্ত থেকে আগত দর্শনার্থীরা। বেহাল রাস্তার কারণে বেশ কিছু যানবাহন উল্টে দুর্ঘটনার কবলে পড়েন যাত্রীরা। সাধারণ মানুষের যাতে অসুবিধা না হয় তাই নিজ উদ্যোগে রাস্তা সংস্কারে নামেন মালদা জেলা তৃণমূল সংখ্যালঘু সেল এর সহ-সভাপতি আনহারুল হক।

ইংরেজবাজার ব্লকের কাজিগ্রাম গ্রাম পঞ্চায়েতের এক প্রান্তে রয়েছে হিন্দুদের মহাশ্মশান সাদুল্লাপুর। তার থেকে প্রায় সাড়ে তিন কিলোমিটার দূরে রয়েছে মুসলিমদের পিরানা পির দরগা। দুই সম্প্রদায়ের হাজার হাজার মানুষ এই রাস্তাটি ব্যবহার করেন। গত দুই বছর করোনা আবহে লকডাউন এর কারণে উৎসব থেকে বঞ্চিত ছিল মানুষ। এবছর অনেকটাই নেমে গিয়েছে করোনার খারাপ নেই সরকারি বিধিনিষেধ। এই পরিস্থিতিতে আনন্দে ঈদ উৎসব পালন করবেন মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ। ইতিমধ্যে পিরানা পির দরগাহ এলাকায় শুরু হয়েছে মেলার প্রস্তুতি।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন দীর্ঘদিন ধরে এই রাস্তাটি সংস্কারের দাবি তুলেছেন তারা। কিন্তু তা বাস্তবায়িত হয়নি। ঈদ উপলক্ষে বিশাল মেলার আয়োজন করা হয় পিরানা পির দরগাহ প্রাঙ্গণে। পাঁচ থেকে ছয় লক্ষ মানুষের সমাগম হবে এই মেলায়। প্রশাসন উদ্যোগ না নেওয়ায় আনহারুল বাবু নিজে উদ্যোগ নিয়ে রাস্তা সংস্কার করছেন। এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন তারা।

মালদা জেলার সংখ্যালঘু সেলের সহ- সভাপতি আনহারুল হক জানিয়েছেন, মালদা জেলা পরিষদের সভাধিপতি এবং প্রশাসনকে লিখিত ভাবে জানিয়ে সংস্কার হয়নি এই রাস্তার। একদিকে হিন্দুদের মহাশ্মশান অন্য প্রান্তে মুসলিমদের দরগাহ।মাঝখানে প্রায় সাড়ে তিন কিলোমিটার রাস্তা। মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, ধর্ম নিজের নিজের উৎসব সকলের। তাই তিনি সাধারণ মানুষের কথা ভেবে নিজে উদ্যোগ নিয়ে রাস্তা সংস্কারের কাজ শুরু করেন।

মালদা জেলা পরিষদের সভাধিপতি এটিএম রফিকুল হোসেন জানিয়েছেন ওই রাস্তাটি পাকা করার জন্য একটি প্রপোজাল দেওয়া হয়েছে। এলাকার মানুষের দাবী ছিল রাস্তা সংস্কারের। কিছুদিনের মধ্যে সেই রাস্তার কাজ শুরু হবে বলেও জানান তিনি।