ছেলেকে বাবার স্বীকৃতি তো দেননি, তার ক্যারিয়ারও গড়তে দেয়নি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে এই মহেশ ভাট

149
ছেলেকে বাবার স্বীকৃতি তো দেননি, তার ক্যারিয়ারও গড়তে দেয়নি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে এই মহেশ ভাট

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু মামলা নিয়ে মহেশ ভাটের উপরে ক্ষুব্ধ সিনেমা মহল থেকে শুরু করে দর্শকরা। এই সময় দাঁড়িয়ে আলিয়া ভাটকেও রীতিমতো দর্শকদের ক্ষুদ্ধের শিকার হতে হচ্ছে তার বাবার জন্য। তার জলজ্যান্ত প্রমান হলো sadak-2 এর সুপার ফ্লপ হওয়া।

মহেশ ভাটের মোট চারজন সন্তান রয়েছে, তার মধ্যে প্রথম পক্ষের অর্থাৎ কিরণ ভাটের সাথে তার দুই সন্তান রয়েছে একজন হলো পূজা ভাট আর একজন হলো রাহুল ভাট। রাহুল ভাট অবশ্য অতটা জনপ্রিয় হতে পারেনি যতটা তার বোন পূজা ভাট হতে পেরেছিলেন। রাহুল ভাট বিগ বস এইট এর প্রতিযোগী ছিলেন। বিগবসে তাকে প্রথম টেলিভিশন জগতে দেখা গিয়েছিল তারপরে আর কোনদিনও তাকে দেখা যায়নি।

দুবছর আগে রাহুল ভাট একটি সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, তার বাবা একটি শয়তান তাকে কোনদিনও পুত্র হিসেবে মেনে নেয়নি। কারণ জানতে চাওয়া হলে, তিনি বলেন তার বাবা অর্থাৎ মহেশ ভাট তার নাম মহম্মদ রাখতে চেয়েছিলেন যাতে তার মায়ের ঘোর আপত্তি ছিল। রাহুলের মা অর্থাৎ কিরণ ভাট কখনই চাইনি তার সন্তানদের ওপর কোন ধর্মের ছায়া পরূক। সেই কারণেই রাহুলকে তার বাবা কোনদিনও পুত্রের মর্যাদা দেয়নি ।

নিজের বাবা হয়েও সৎ বাবার মত কাজ করেছে মহেশ ভাট। নিজের ছেলেকেও পর্যন্ত সিনেমা জগতে কাজ দেয়নি এবং কারোর কাছে থেকে কাজ পেতেও দেয়নি। অন্য কোন পরিচালকের কাছে কাজ চাইতে গেলে, তখনই তাকে বলা হত নিজের বাবাই কাজ দেয়নি তাকে তাহলে তাকে কি করে আমরা নিজের সিনেমায় কাজ দেব। অর্থাৎ এই কথা থেকে স্পষ্ট যে, মহেশ ভাট শুধুমাত্র অন্যান্য সেলিব্রেটিদের ক্যারিয়ার নষ্ট করেনি। তিনি এতটাই খারাপ মনের একটা মানুষ যে নিজের ছেলেকেও ক্যারিয়ার গড়তে দেয়নি এই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে।