ওজন কমানোর অস্ত্রপচার করতে লম্বা লাইন দিল্লির হাসপাতালে

18
ওজন কমানোর অস্ত্রপচার করতে লম্বা লাইন দিল্লির হাসপাতালে

ইতিমধ্যেই করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আমাদের ছেড়ে চলে গেছে। এবার আমরা অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছি কখন নতুন একটি ঢেউ আছড়ে পড়বে আমাদের উপরে। মোটামুটি আগস্ট মাসে করোনার এই ঢেউ আমাদের ওপর আছড়ে পড়বে বলে বলে দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তাই নতুন এই ঢেউয়ের মুখোমুখি হওয়ার আগেই রাজধানী দিল্লিতে ওজন কমানোর অস্ত্রোপচারে করার হিড়িক পড়ে গেছে। চলুন জেনে নেওয়া যাক কারণটা কি।

বর্তমানে দিল্লির এমসি ওজন কমানোর অস্ত্রপচার করানোর জন্য লম্বা লাইন পড়ে গেছে মানুষের। সকলেই চাইছেন তৃতীয় ঢেউ আসার আগে নিজেদের স্লিম করে নিতে। নিজেকে সুন্দর দেখানোর উদ্দেশ্যে এটি করছেন না তারা, বরং করোনার ছোবল থেকে বাঁচার জন্য এই কাজটি করতে হচ্ছে তাদের।

এনাদের মধ্যে অন্যতম হলেন নয়টার বাসিন্দা দীপিকা শর্মা। যার ওজন প্রায় ৯০ কেজির কাছাকাছি। অতিরিক্ত ওজনের জন্য রয়েছে ব্লাড প্রেসার, কোলেস্টেরল এবং সুগার। গতবার করোনায় বেশ ভুগতে হয়েছিল তাকে। চিকিৎসকরা বারবার বলে দিয়েছিলেন ওজন কিন্তু কম করতে হবে। কিন্তু বারবার চেষ্টা করার পরেও দীপিকা ব্যর্থ হয়ে যান। কিন্তু এরপরেও যদি তিনি করোনাতে আক্রান্ত হন তাহলে তার প্রাণ সংশয় হতে পারে তাই সমস্ত দিক বিবেচনা করে এবার অস্ত্রপ্চার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন দীপিকা।

এ রকমই ওজন কমানোর জন্য অস্ত্রোপচার করতে এসেছেন আরো একজন মানুষ যার নাম মেহেক, ২৯ বছরের এই চিকিৎসক অত্যাধিক মেদের জন্য নানা রকম সমস্যার সম্মুখীন হয়েছেন। এর আগে করোনাতে আক্রান্ত হয়েছেন তিনি। ভবিষ্যতে যাতে কোনো রকম সমস্যার সম্মুখীন না হতে হয় তাই এখন থেকেই অস্ত্রোপচার করাতে এসেছেন তিনি।

এই প্রসঙ্গে ব্যারিয়াট্রিক সার্জারির ইনচার্জ চিকিৎসক সন্দীপ আগরবাল জানিয়েছেন, হাসপাতালে প্রচুর রোগী আসছেন সম্পূর্ণ ভাবে প্রস্তুত হয়ে। তারা চাইছেন যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সার্জারি করে রোগা হতে। করোনার মৃত্যুভয় তাদের এতটাই আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে রেখেছে যে, তারা চাইছেন এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে।